রত্নার অপসারণ নিয়ে ধোঁয়াশার জাল বাড়ছে

।।রাজীব ঘোষ ।।

শোভন চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়কে দলের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন সূত্রের মাধ্যমে এই খবর জানা গিয়েছে। যদিও রত্না চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন দলীয় নেতৃত্বের কাছ থেকে তিনি এরকম নির্দেশ পাননি। এই কারণে রত্না চট্টোপাধ্যায়ের অপসারণ নিয়ে কিন্তু ধোঁয়াশা তৈরি হয়ে গেল। শোভন চট্টোপাধ্যায় দিল্লিতে গিয়ে বিজেপিতে যোগদান করার পরে তার স্ত্রী রত্নার হাতে শোভনের ওয়ার্ডের দায়িত্ব তুলে দেয় তৃণমূল।

বর্তমানে তৃণমূলের পক্ষ থেকে রত্নাকে সরিয়ে দেওয়ার পদক্ষেপ নেওয়া শোভন চট্টোপাধ্যায় কে তৃণমূলে ফিরে আসার ইঙ্গিত বলেই মনে করা হচ্ছে। বেশ কিছুদিন ধরেই শোভনকে তৃণমূলের ফেরানোর জন্য দলের একাংশ সক্রিয় হয়েছেন বলে গুঞ্জন তৈরি হচ্ছিল। রত্নাকে সরানো না হলে শোভনের তৃণমূলে ফেরা সম্ভব নয় বলেও শোনা যাচ্ছিল। তবে রত্না চট্টোপাধ্যায় কে সরানোর কথা তৃণমূলের পক্ষ থেকে কোনো সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে জানানো হয়নি।

এই বিষয়ে প্রেস বিবৃতিও প্রকাশ করা হয়নি। এই বিষয়ে রত্না জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের হয়ে কাজ করতে বলেছিলেন। তিনি যতক্ষণ কিছু না বলছেন ততক্ষণ কাজ করে যাব। তবে তিনি তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে এই বিষয়ে দেখা করতে পারেন বলেও জানা গিয়েছে।

তবে শোভন চট্টোপাধ্যায় নিজে কোনো মন্তব্য করেননি। তার বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় সেই ধরণের কোনো প্রতিক্রিয়া জানাননি। বৈশাখী বলেছেন তৃণমূলের কোনো মুখপাত্র বলেন নি রত্নাকে অপসারণ করা হয়েছে। রত্না চট্টোপাধ্যায় অপসারণ নিয়ে যথেষ্ট ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছ।।