Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নিজের গর্দান কেটে মমতার হাতে ঝুলিয়ে দেবো কেন বললেন আব্বাস?

1 min read

।। সুদীপা সরকার ।।

তৃণমূল-বিজেপির পাশাপাশি প্রচারে মন দিয়েছে আইএসএফ নেতা আব্বাস সিদ্দিকিও। একুশের ভোটযুদ্ধে আব্বাস সিদ্দিকিকে বারবার নিশানায় নিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দু’দিন আগেই মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন হায়দ্রাবাদ থেকে বিজেপির এক বন্ধু এসেছে ফুরফুরা শরীফের একটা চ্যাংড়াকে নিয়ে কয়েকশো কোটি টাকা খরচ করে সাম্প্রদায়িক স্লোগান দিচ্ছে। আজ তার পাল্টা জবাব দিয়েছেন আব্বাস সিদ্দিকি।

আব্বাস সিদ্দিকি অভিযোগ তোলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় হচ্ছে সবচেয়ে বড় বিজেপি। বাংলায় রাজনৈতিক হিংসা ছড়াচ্ছে তিনি।মুখ্যমন্ত্রীর নাম না করে আজ আব্বাস সিদ্দিকি অভিযোগ তোলেন উনি বলছেন বাংলায় এনআরসি আমি করতে দিইনি। আসলে উনি মিথ্যুক, ধোকাবাজ, চিটিংবাজ মানুষকে ধোঁকা দেয়। মানুষের সাথে গাদ্দারি করেছে। কত বড় মিথ্যুক। ২০০৫ সালে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি করার জন্য সওয়াল তুলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


আব্বাস সিদ্দিকি বলেন আমি নেতা বা মন্ত্রী হতে নামেনি। আমি বাংলার মানুষের জন্য নেমেছি। লড়াই করার অধিকার আমার আছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন সরকার গঠনের পর বাংলায় শিল্প নিয়ে আসবে কিন্তু কোনো শিল্প আসেনি। আব্বাস সিদ্দিকি অভিযোগ তোলেন, বিজেপির সঙ্গে সব সময় ভালো সম্পর্ক ছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। সবচেয়ে বড় বিজেপি মমতা ।তিনি বলেন, ভাঙরে এসে ভুলভাল কথা বলে গেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

আব্বাস হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন , তিনি যদি ভুল কথা বলে থাকেন তা যদি প্রমাণ করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী তাহলে তিনি নিজের গর্দান কেটে মমতার হাতে ধরিয়ে দেবেন । আব্বাস বলেন ভাঙরে যদি কেও চোখ তুলে তাকায় তাহলে আমি আইনি ব্যবস্থা নেব। আব্বাস সভায় উপস্থিত কর্মীদের উদ্দেশ্যে সকলকে খাম চিন্নে ভোট দেওয়ার জন্য বার্তা দেন। তৃণমূল বিজেপিকে কোনো ভাবেই ভোট দেওয়া চলবে না বলে জানিয়ে দেন তিনি।