Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

জেলার দায়িত্ব কাদের? “পর্যবেক্ষক”পদ নিয়ে শুরু টানাপোড়েন

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

জেলার দায়িত্ব বণ্টন নিয়ে আবারও সামনে এল তৃণমূল কংগ্রেসের বিভ্রান্তি। প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই, জেলার ‘পর্যবেক্ষক’ পদ নিয়ে দীর্ঘদিন টানাপোড়েন চলার পর পদটি তুলে দিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। ঘটনাচক্রে, এরপরই সেই পদ তুলে দেওয়া নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন শুভেন্দু অধিকারীর (Shubhendu Adhikari)। তৃণমূল দল ছাড়ার আগে সেই বিষয় নিয়ে প্রকাশ্যে এবং দলের অন্দরে একাধিকবার নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেন শুভেন্দু অধিকারীর (Shubhendu Adhikari)। ফলে বলাই যায় ‘পর্যবেক্ষক’ পদটি নিয়ে তৃণমূল ‘স্পর্শকাতর’।

আর আবারও সেই পদ নিয়ে বুধবার তৈরি হল জল্পনা। আর এরপরই ট্যুইটে বিষয়টি পরিষ্কার করল তৃণমূল কংগ্রেস। প্রসঙ্গত, বুধবারই জানা যায়, দলের প্রবীণ নেতাদের ফের জেলাভিত্তিক সংগঠনের দায়িত্ব দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। সেই তালিকায় রয়েছেন সুব্রত বক্সি থেকে শুরু করে ফিরহাদ হাকিম, পার্থ চট্টোপাধ্যায় অরূপ বিশ্বাস সকলেই। জানা যায়, উত্তরবঙ্গের কোচবিহারের সঙ্গে দুই দিনাজপুরের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সিকে(Subrata Bakshi)। পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে (Firhad Hakim) দেওয়া হয়েছে মালদা, মুর্শিদাবাদ, হাওড়া ও হুগলি জেলার দায়িত্ব।

এছাড়া, নদিয়া, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রামের দায়িত্ব পেয়েছেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়(Partho Chattopadhyay)। অন্যদিকে, টালিগঞ্জের বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস (Arup Biswas)দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে দুই বর্ধমান সহ জলপাইগুড়ি এবং আলিপুরদুয়ারের। তবে, পাশাপাশি এও জানা যায় যে, আবারও প্রবীণ নেতাদের বিভিন্ন জেলার দায়িত্ব দেওয়া হলেও ব্যবহার করা হয়নি ‘পর্যবেক্ষক’ শব্দটি। তবে, পর্যবেক্ষক শব্দ ব্যবহার না করার কথা বলা হলেও জল্পনা কিন্তু শুরু হয়। আর এরপর বৃহস্পতিবার সকালেই কাউকে কোনও জেলার দায়িত্ব দেওয়া হয়নি, বলে ট্যুইট করা হয় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে।

আরো পড়ুন : রাত বারোটাতেই চমক দেখালেন শুভেন্দু

সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে ট্যুইট করে জানানো হয় যে, এমনকিছু দলের অন্দরে আদৌ হয়নি। ওই ট্যুইটে বলা হয়েছে, ওই খবর পুরোপুরি ‘ভিত্তিহীন’। লেখা হয়েছে, ‘বাংলার কয়েকটি জেলায় ‘পর্যবেক্ষক’ নিয়োগের যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে, তা ভিত্তিহীন। এ জাতীয় কোনও নিয়োগ (অ্যাপয়েন্টমেন্ট) দেওয়া হয়নি। এটি স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে’।বলে তৃণমূল কংগ্রেসের তরফে ট্যুইট করা হয়। অন্যদিকে, কিছুদিন আগেই সারা বাংলায় দলের পর্যবেক্ষক তিনিই বলে জানিয়েছিলেন খোদ তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। জানিয়ে ছিলেন, এতদিন প্রশাসনের কাজ দেখতে গিয়ে দলের কাজ পুরোপুরি দেখতে পারেননি তিনি। তাই এবার থেকে দলের কাজেই বেশি মন দেবেন তিনি।