Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আপনি কী করছিলেন ধৃতরাষ্ট্র হয়ে বসেছিলেন, কাকে বললেন দিলীপ ঘোষ

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

তৃণমূলকে নিয়ে বাঁকুড়ার ছাতনা তলা থেকে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে আবারও ব্যাঙ্গাত্মক মন্তব্য করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তিনি বলেন, ‘যাদের মাথার মধ্যে নোংরা আছে তারা চারিদিকে গোবর জল ছড়ালেও কিছু হবেনা, গঙ্গায় ডোবালেও হবেনা, সেজন্য এদের বুদ্ধিভ্রংশ হয়েছে বিচার ভ্রংশ হয়েছে, মাথাই খারাপ হয়ে গেছে কী করবে বুঝে উঠতে পারছেনা, এখানকার লোক একবারই গোবর জল দেবে মে মাসের পরে’, মন্তব্য দিলীপ ঘোষের। নেতাই, নন্দীগ্রাম কোন আন্দোলনের সঙ্গেই নাকি আপনারা যুক্ত ছিলেন না সাংবাদিকদের এই কথার রেশ ধরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘আমাদের দরকার নেই যারা যুক্ত ছিলেন নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তারাই আজকে সম্মান জানাচ্ছেন ওখানে।

এধরনের আন্দোলন কারও একার পৈতৃক সম্পত্তি নয়, অন্যায়ের বিরুদ্ধে আন্দোলন হয়েছে সাধারন সমাজ করেছে’। পাশাপাশি তার মন্তব্য, ‘তখন কেউ নেতা ছিলেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ছিলেন না ছিলেন শুভেন্দু অধিকারী (Shubhendu Adhikari)। তিনি এখন আজকে আমাদের,’ পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দ্যেশে তার মন্তব্য ‘যুব কংগ্রেসের আন্দোলন সেটাকে যদি উনি হাইজ্যাক করতে পারেন, সিদ্ধার্থ শঙ্কর রায়ের শবদেহকে হাইজ্যাক করতে পারেন, সুচিত্রা সেনের dead bodyকে হাইজ্যাক করতে পারেন, শব চুরি করা আর ইস্যু চুরি করা ওনার অভ্যাস।’ তার প্রশ্ন ‘২১শে জুলাই কীসের অধিকারে করেন সেটাতো কংগ্রেসের আন্দোলন ছিল, উনি সবকিছু বগলে করে নিয়ে চলে যাচ্ছেন’ বলে কটাক্ষ বিজেপি রাজ্য সভাপতির।

পাশাপাশি শুভেন্দু অধিকারীর রাতে নন্দ্রীগ্রামে শ্রদ্ধা জানানোর বিষয় সময় নিয়ে কটাক্ষ করা নিয়ে দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, ‘সময় তিথি পন্জিকা তা তো সবই ভুলে যান ওনারা, যা নাটক করেন তার সঙ্গে কোন date-এর মিল থাকেনা, তাই এই সব কথা বলে লাভ নেই’ বলে মন্তব্য করার পাশাপাশি তিনি আরও বলেন যে, ‘আজ মানুষ তার বিরুদ্ধে এই ধরনের আন্দোলন করতে চাইছে, নেত্রীত্ব আমরা দিচ্ছি বলে স্পষ্ট করে দেন দিলীপ ঘোষ(Dilip Ghosh)। ‘একটি গাছ থেকে দু তিনটি পাতা ঝরে গেলে গোটা গাছটা মরে যায়না’ সুব্রত বক্সির এই মন্তব্য নিয়ে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘কান্নাকাটি করছিলেন কেন দিদি দিদি করে, যেতে দিন না’ এইভাবে সুব্রত বক্সির কান্না নিয়ে কটাক্ষ করার পর দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘পাতা নয় সব ডাল ছাঁটা হচ্ছে’ তার মন্তব্য, ‘ওনার মত একটা কান্ড পড়ে থাকবে যার শিকড় বাকর নেই’ তিনি আরও বলেন,

আরো পড়ুন : নেশাগ্রস্ত নেতাকে লালগড়ে পাঠিয়েছে তৃণমূল, কাকে নিশানা শুভেন্দুর?

‘এই যে হাতের পুতুল হয়ে যিনি এত বছর রাজনীতি করলেন কালকে তাকেও লোকে প্রশ্ন করবে এসব অন্যায় হচ্ছিল অপরাধ হচ্ছিল আপনি কী করছিলেন ধৃতরাষ্ট্র হয়ে বসেছিলেন, তার জবাব কিন্তু সুব্রতবাবুকে দিতে হবে’ এইভাবে পরোক্ষভাবে সুব্রত বক্সির দিকে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন দিলীপ ঘোষ। পাশাপাশি বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলির(Sourabh Ganguly)আজ হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়া নিয়ে শুভেচ্ছা বার্তায় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh) জানান, আমরা আগেও শুভেচ্ছা জানিয়েছি সৌরভ লড়াকু একজন, আমাদের দেশের ক্রিকেট টিমকে দাঁড় করিয়েছেন লড়াকু ক্যাপ্টন। সারা দেশের লোক ওনার সঙ্গে আছে। আমরা চাইব খুব তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে এসে উনি প্রশাসক হিসেবে যোগ্যতার সঙ্গে কাজ করুন’।

পাশাপাশি সৌরভ গাঙ্গুলির রাজনীতিতে আসা নিয়ে দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, ‘সেটা ওনার দায়িত্ব রাজনীতিতে আসবেন কী না আসবেন সবাইকে আসতে হবে এরকম কথা নেই কিন্তু সফল মানুষরা রাজনীতিতে এলে মানুষের বিশ্বাস বাড়ে।’ এছাড়া, পচা, তৃণমূল থেকে যা আসছে বিজেপি তাই নিচ্ছে এই বিষয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের কটাক্ষ (Dilip Ghosh) ‘যেগুলো আজকে ওনার কাছে টাটকা আমাদের কাছে এলে পচে যাচ্ছে ? যাদের নিয়ে উনি গর্ব করতেন যারা পার্টি দাঁড় করিয়েছেন তারা পচা হয়ে গেল’ এই প্রশ্নের পাশাপাশি তার মন্তব্য, ‘পচাগুলোই পড়ে আছে ভালোগুলো আমরা নিয়ে নিচ্ছি।’