Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মাস্ক পড়লে বিউটিপার্লার গুলোর কি হবে? মাস্ক পড়তে হবে না স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কথায় হুলুস্থুল!


।। ময়ুখ বসু ।।


মানুষ মাস্ক পরলে বিউটি পার্লারগুলোর কি হবে? তাই করোনা দেশে যতোই মাথাচাড়া দিক না কেন, অসমে আপাতত বিউটিপার্লারগুলোর দিকে তাকিয়ে মাস্ক পরার পক্ষপাতী নন অসমের বিজেপি নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। এদিকে অসমে বিধানসভা ভোটের মধ্যেই সে রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এহেন মন্তব্যে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়েছে অসমের রাজনীতিতে। উল্লেখ্য, এর আগে করোনা দূরীকরণে বিজেপি নেতারা গোমুত্রে করোনা নির্মূল করার দাওয়াই দেন, একইসঙ্গে গঙ্গাজলেও করোনা নির্মূল হবে বলেও দাবি করেন পদ্ম ভক্তেরা।

এই অবস্থায় দাঁড়িয়ে এবারে হিমন্ত বিশ্বশর্মা করোনা আবহে দাঁড়িয়ে বিউটিপার্লারের ব্যবসা চলার জন্য মাস্ক না পরার দাওয়াই দিলেন। মন্ত্রীর এহেন মন্তব্যে অসমে ভোট উত্তাপের মধ্যেই অসম সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠে এসেছে। এদিকে দেশে নতুন করে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলায় ইতিমধ্যে বিভিন্ন রাজ্যগুলিকে বিশেষ নির্দেশিকা পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

করোনা বিধি পালনের ক্ষেত্রে নতুন করে জোর দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, আর মাত্র দুইদিন পরেই আসমে তৃতীয় পর্বের বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। তার আগে রাজ্যটির শাসক দলের মন্ত্রীর এহেন মন্তব্য যথেষ্ট অস্বস্তিতে ফেলেছে গেরুয়া শিবিরকে। যদিও সেসব নিয়ে চিন্তিত নন হিমন্ত বিশ্বশর্মা। উল্টে তিনি বলেছেন, অসমে যখন করোনাই নেই, তাহলে কেন শুধু শুধু মাস্ক পরছেন রাজ্যবাসী! এর ফলে আরও আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। তিনি বলেন, মানুষ যদি মাস্ক পরে তাহলে বিউটিপার্লারগুলি চলবে কি করে?

রাজ্যের বিউটি পার্লারগুলিকে বাঁচিয়ে রাখার কথাও তো আমাদের চিন্তা করতে হবে। করোনা নিয়ে কেন্দ্রের নির্দেশিকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কেন্দ্র নির্দেশ দিতেই পারে। নির্দেশিকাও জারি করতে পারে। কিন্ত আসমে তো করোনাই নেই। রাজ্য থেকে যদি করোনা চলে গিয়ে থাকে তাহলে আমার কি করার আছে? তিনি বলেন, আবার যেদিন মনে করবো অসমে করোনা ঢুকে পড়েছে, সেদিন আবার রাজ্যবাসীকে মাস্ক পরতে বলবো।