Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মিমকে নিয়ে তৃণমূলের দুঃশ্চিন্তা বাড়ার কারন কী? জেনে রাখুন

1 min read


।। ময়ুখ বসু ।।


আগামী বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে বিজেপি। এখন থেকেই বিজেপিকে রুখতে রীতিমতো কালঘাম ঝরাতে হচ্ছে তৃণমূলকে। তারমধ্যেই এবারে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুঃশ্চিন্ত বাড়িয়ে তৃণমূলকে নয়া চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছে আসাদুদ্দিন ওয়েইসির অল ইন্ডিয়া মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মুসালিমেন বা মিম। মিম এবারের নির্বাচনে পশ্চিমবাংলার সংখ্যালঘু ভোটে থাবা বসাতে প্রস্তুত। ইতিপূর্বে বিহারের মাটিতে পশ্চিমবঙ্গ সীমান্ত লাগোয়া পাঁচটি কেন্দ্রে তারা জয়ী হয়েছে। ফলে এবারে তাদের টার্গেটে বাংলা। ইতিমধ্যে বাংলায় পা রেখেই মিম প্রধান আসাদুদ্দিন ওয়েইসি দেখা করেছেন ফুরফুরা শরিফের পিরজাদা আব্বাস সিদ্দিকীর সঙ্গে।

আব্বাস সিদ্দিকীর সঙ্গে জোট বেঁধে তিনি বাংলার ভোট ময়দানে লড়তে চলেছেন বলেই খবর। আর সেটা হলে রাজ্য রাজনীতির সমীকরণ যে পালটে যেতে পারে এমন আশংকা করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরাই। ২০১১ সালের জনগণনা অনুযায়ি পশ্চিমবাংলায় ২,৪৬ কোটি মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষ রয়েছেন। যা রাজ্যের মোট জনসংখ্যার ২৭,০১ শতাংশ। যারমধ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের ভোটার প্রায় ২ কোটি। এই মুসলিম সম্প্রদায়ের ভোটারদের একটি বড়ো অংশ রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ, মালদা এবং উত্তর দিনাজপুর জেলায়। রাজ্যজুড়ে এই মুসলিম ভোটাররা প্রায় ১০০ থেকে ১১০ টি আসনের নির্ণায়ক শক্তি। যারমধ্যে মুর্শদাবাদ, মালদা এবং উত্তর দিনাজপুর জেলাতেই রয়েছে ৪৩ টি আসন।

রাজ্যে গত ৩৪ বছরের বাম সরকার এই মুসলিম ভোটারদের তাদের দিকে ধরে রেখেছিলো। তারপর রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর এই মুসলিম ভোটারদের ভোটব্যাংককে দখলে নেয় তৃণমূল কংগ্রেস। কিন্ত এবারে মিমের কারনে সেই মুসলিম ভোটাররাই তৃণমূলের কাছে ভয়ের কারন হয়ে দাড়িয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর রাজ্যের মুসলিম সম্প্রদায়ের ইমাম ও মোয়াজ্জিমদের মাসিক ভাতা প্রদানের ব্যাবস্থা করেন। পাশাপাশি হিন্দু ভোট ধরে রাখতে তিনি পুরোহিত ভাতাও চালু করেন।

কিন্ত এবারের নির্বাচনে বিজেপি যেমন বাংলার মাটিতে হিন্দু মেরুকরনের রাজনীতিকে কাজে লাগাতে মরিয়া তেমনি ওয়েইসির দল রাজ্যে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে মেরুকরণের সম্ভাবনাকে আরও বাড়িয়ে দেবে বলে রাজনৈতিক মহলের ধারনা। সেক্ষেত্রে বিপদ বাড়বে তৃণমূলের। এদিকে পরিসংখ্যান মতে, ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি পশ্চিমবাংলা থেকে ১৮ টি আসনে জয়ী হয়েছে। লোকসভা ভোটের নিরিখে রাজ্যের ১২১ টি বিধানসভাতে এগিয়ে রয়েছে তারা। যেখানে দাঁড়িয়ে লোকসভা নির্বাচনের নিরিখে ১৬৩ টি আসনে এগিয়ে তৃণমূল। এই হিসাব মতে বিজেপি ২৭ টি আসনে পিছিয়ে থাকলেও মিম যদি সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ভোট কাটে তাহলে বাড়তি সুবিধা পেয়ে যাবে বিজেপি। অন্যদিকে সমস্যা বাড়তে পারে তৃণমূলের।