Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নেতাদের দল পরিবর্তনে ভোটারদের উপর কি প্রভাব পড়বে? কী বললেন দিলীপ?

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

দিন যত এগোচ্ছে ততই জমে উঠছে রাজনীতির মঞ্চ। দলবদলের পাশাপাশি চলছে শাসক-বিরোধী শিবিরের তরজাও। তারই মধ্যে এবার বিধানসভা ভোটে কী ইস্যু হতে চলেছে গেরুয়া শিবিরের তা পরিস্কার করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ(Dilip Ghosh)। পাশাপাশি মুখ খুললেন বাম-কংগ্রেস জোট নিয়েও। বাম-কংগ্রেস জোটকে মানুষ ছুঁড়ে ফেলে দেবে বাঁকুড়া শহরের মাচানতলায় চায়ে পে চর্চায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এমনই মন্তব্য করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। বাম-কংগ্রেস জোট সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘জোট তো পুরনো হয়ে গেছে রিজেক্ট হয়ে গেছে।’ তার প্রশ্ন ২০১৬ সালে কো জোট হয়েছিল কী হল ?’

তার মন্তব্য ‘মানুষ পিছনে তাকাবেনা আর। ওনাদের আবার সুযোগ দিয়েছিল ওনারা নিতে পারেননি’ তার স্পষ্ট মন্তব্য, ‘এবার বিজেপির chance’। এরপর, বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ((Mamata Banerjee) ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনকরের (Jagdeep Dhankar) বৈঠকের বিষয় সাংবাদিকরা দিলীপ ঘোষের কাছে জানতে চাইলে তার কটাক্ষ, ‘আমি অত চিন্তা করে মাথা খারাপ করতে চাইনা।’ এরপর কটাক্ষের ছলেই তিনি বলেন, ‘দিদিমণি এখন পাঁকে পড়েছেন কৃষক সম্মান নিধি মেনে নিলেন কথাবার্তা নরম হয়েছে, বলেও মন্তব্য করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। তিনি আরও বলেন, ‘রাজ্যপালের সঙ্গে লড়াই করে ক্ষত বিক্ষত হয়েছেন বুঝেছেন ভুল হয়ে গেছে তাই কিছু adjustment-এ যাচ্ছেন, সেজন্যই গেছেন’ মন্তব্য বিজেপি রাজ্য সভাপতির।

আরো পড়ুন : আবারও বিস্ফোরণ বীরভূমে , শুরু রাজনীতির তরজা

রুদ্রনীল ঘোষের যোগদানের বিষয় তার মন্তব্য ‘নেতা অভিনেতা আমাদের অনেক হয়ে গেছে, আসার জন্য সবার জন্য দরজা খোলা আছে, অনেকে হয়তো লাইনে আছে কারও না কারও সঙ্গে কথা বলছে, তো আমরা অপেক্ষা করছি, আসুন আমরা নিয়ে সবাইকে কাজ করব’ বলেও জানান দিলীপ ঘোষ। নেতাদের দল পরিবর্তনে ভোটাররা প্রভাবিত হবেন কিনা ? এই বিষয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি জানান, ‘TMC-কে তো ভোট দিয়েছিল, TMC বলেতো কিছু ছিলনা বাঁধাকপির মত, পাতাই ছিল এদিক ওদিক থেকে নিয়ে এসে তাকে কী করে ভোট দিল লোকে।’ তার মন্তব্য, ‘লোকে experiment করতে চায় আমরাও experiment করছি।

যারা বাংলার উন্নয়নের জন্য কাজ করতে চান আসছেন আমরা তাকে গ্রহণ করছি, তারপর মানুষের হাতে সবকিছু আছে তারাই ঠিক করবেন’ বলে জানান দিলীপ ঘোষ। এবং সব শেষে ভোটে বিজেপির ইস্যু কী থাকবে ? এই প্রশ্নে দিলীপ ঘোষের উত্তর, ‘কী ইস্যু নেই ?’ তিনি জানান, ‘গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করাটা প্রথম ইস্যু, হিংসা বন্ধ করাটা প্রথম ইস্যু, দুর্নীতি বন্ধ করাটা আমাদের ইস্যু, শিক্ষা শিল্প অর্থনীতিকে ঠিক করা এটাও ইস্যু, হাজার ইস্যু আছে কিন্তু প্রথম বাংলার মানুষের গণতন্ত্র ফিরিয়ে দিতে হবে, আইনশৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে হবে’ মন্তব্য বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)-এর। ভোটের আগের সন্ত্রাস নিয়ে তার মন্তব্য, ‘সন্ত্রাস কবে ছিলনা, কমিউনিস্ট রাজনীতির সময় থেকে সন্ত্রাস শুরু হয়েছে সে সন্ত্রাস শেষ হবে ২০২১-এ বিজেপির হাত ধরে।’ বলে জানান বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)।