Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ভিক্টরিয়া মেমোরিয়ালে মমতা “জয় বাংলা” স্লোগান দিয়েই কি ভুল করলেন?

1 min read

।। ময়ুখ বসু ।।


শনিবার কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে নেতাজির ১২৫ তম জন্মজয়ন্তী উৎসব অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বক্তব্য রাখতে উঠতেই জয় শ্রীরাম স্লোগান ঘিরে রাজ্য রাজনীতি এখন সরগরম। এই ঘটনা যে অনভিপ্রেত ছিলো সেকথা স্বীকার করে নিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী এবং বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসুও। এমনকী বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্যও (Shamik Bhattacharya) এই ঘটনা ওভিপ্রেত নয় সেকথা মেনে নিয়েছেন। ফলে অনুষ্ঠান মঞ্চের পোডিয়ামে উঠে এই ঘটনার প্রতিবাদে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য না রেখে মমতার নেমে যাওয়ার পক্ষে এখন জনমত চড়ছে।যদিও বিপক্ষেও মত রয়েছে। তবে রাজনৈতিক মহল মনে করছেন, ওই মঞ্চে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জয় বাংলা শ্লোগান দেওয়ায় তা বিরোধীদের কাছে তুরুপের তাস হয়ে উঠতে পারে।

মূলত জয় বাংলা বাংলাদেশের আওয়ামী লীগ তাদের রাজনৈতিক স্লোগান হিসাবেই ব্যাবহার করে থাকে দীর্ঘদিন ধরে। বাংলাদেশের সংগীতেও জয় বাংলা বাংলার জয় শব্দ স্থান করে নিয়েছে। এমনকী একাত্তরে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের সময় বাংলাদেশ থেকে আসা শরণার্থীদের জয় বাংলা বলে কটাক্ষ করা হতো। যার ফলে জয় বাংলার সঙ্গে বাংলাদেশের একটা সম্পৃক্ততা অলিখিতভাবেই তৈরি হয়ে গিয়েছে। সেখানে দাঁড়িয়ে জয় বাংলা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলার কারনে এই বিষয়টিকে বিজেপি ফের রাজনৈতিক ময়দানে তুলে ধরলে তাতে অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না বলে রাজনৈতিক মহলের ধারনা। এমনীতেই বিজেপি বারবার অভিযোগ তুলে আসছে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারীদের রাজ্যে ঠাই দিয়ে নিজেদের ভোট ব্যাংক বাড়াচ্ছেন। দুই বাংলার সম্প্রতীকে নানাভাবে নানা সময়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েন না বিজেপি নেতারা।

আরো পড়ুন : ভিক্টোরিয়ায় মুখ্যমন্ত্রীর অপমান বাঙালি সুদে আসলে ফেরত দেবে, হুঁশিয়ারি দেবাংশুর

এমনকী কয়েকদিন আগে এক বিজেপি নেতা একুশের ভোটের পর মমতাকে বাংলাদেশ চলে যেতে হবে বলে হুংকার ছেড়েছিলেন। সেখানে দাঁড়িয়ে মমতার জয় বাংলা স্লোগান নিয়ে ফের রাজনীতির পারদ চড়তে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ। শনিবারে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালের জয় শ্রীরাম শ্লোগানের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানাতে শুরু করে দিয়েছে তৃণমূল। তৃণমূল নেতৃত্ব দাবি করেছে, সরকারি অনুষ্ঠানের মাঝে জয় শ্রীরাম স্লোগান সমগ্র জাতির মাথা হেট করে দিয়েছে। একই সঙ্গে এই ঘটনায় নিন্দার ঝড় ওঠে রাজনৈতিক মহলে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই গোটা ঘটনায় খানিকটা হলেও বিপাকে গেরুয়া শিবির। সেখানে দাঁড়িয়ে তারা রাজনৈতিক ময়দানে ঘুরে দাড়াতে উল্টে রাজনৈতিক ফাক ফোঁকর গলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পালটা আক্রমন শাণাতে পারে। আর সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে জয় বাংলা শ্লোগান বুমেরাং হয়ে উঠবে না তো?