“আমরা দেশ-বিরোধী নই, বিজেপি-বিরোধী”: জোট গড়ার পর ফারুক আবদুল্লা

1 min read

।। সুদীপ মান্না ।।

ন্যাশানাল কনফারেন্স সভাপতি ফারুক আবদুল্লা শনিবার সর্বসম্মতিক্রমে পিপলস অ্যালায়েন্স ফর গুপকার ডিক্লারেশন(পিএজিডি)-এর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন। তাঁর সহকারী হলেন পিডিপি প্রধান মেহবুবা মুফতি।

এই জোট এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, সিপিআইএম নেতা মহম্মদ ইউসুফ তারিগামি জোটের আহ্বায়ক হয়েছেন, মুখপাত্র হয়েছেন পিপলস কনফারেন্সের সাজাদ লোন।

জোটের নেতারা মেহবুবা মুফতির বাড়িতে মিলিত হন। তাঁরা পূর্বতন জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের পতাকাটিকে জোটের প্রতীক হিসেবে ঠিক করেছেন। জোট একমাসের মধ্যে জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের পর এক বছরের শাসন পদ্ধতি নিয়ে শ্বেত পত্র প্রকাশ করবে।

লোন জানিয়েছেন, “এই শ্বেত পত্র প্রতীকি হবে না। জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষের বর্তমান অবস্থার তথ্যের ওপর ভিত্তি করে হবে। দেশজুড়ে একটা ছবি প্রচারিত হয়েছে, যে সমস্ত দুর্নীতি শুধু জম্মু ও কাশ্মীরেই হয়েছে।“

তিনি আরও বলেন, “আমাদের পূর্বতন রাজ্যের পতাকাটিই আমাদের প্রতীক হবে।“

জোটের প্রধান ফারুক আবদুল্লা বলেন, “যারা গুপকার জোটকে দেশ-বিরোধী বলছেন তারা ভুল। আমরা বিজেপি-বিরোধী, তার অর্থ দেশ-বিরোধী নয়।“

তিনি বলেন, “ওরা দেশের ও সংবিধানের ক্ষতি করেছে। আমরা চাই জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া হোক। আমাদের ধর্মের ভিত্তিতে ভাগ করার ওদের প্রয়াস ব্যর্থ হবে।“  তিনি আরও জানিয়েছেন, তারা ষখন ৩৭০ ধারা ফেরানোর কথা বলছেন, তখন তারা জম্মু ও লাদাখের আঞ্চলিক সায়ত্ত্বশাসনের কথাও বলছেন।

এই প্রথম জম্মু ও কাশ্মীরের আঞ্চলিক দলগুলি ঐক্যবদ্ধ হল, যারা ৩৭০ ধারা ফেরাতে লড়বে, বলেন আবদুল্লা।

আরও পড়ুন: নুসরত, সৃজিতদের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ করার উদ্য়োগ

কংগ্রেস ৪ আগস্ট ২০১৯এ গুপকার ঘোষণায় সই করলেও শনিবারের বৈঠকে হাজির ছিল না। জোট ঠিক করেছে পরবর্তী বৈঠক ২ সপ্তাহ পরে জম্মুতে হবে। তারপর ১৭ই নভেম্বর শ্রীনগরে সম্মেলন হবে।

Categories