Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ফের রাজ্য পুলিশকে হুঁশিয়ারি, বলাগড়ে চেনা মেজাজেই মমতা

1 min read

।।প্রথম কলকাতা ।।

ফের একবার রাজ্য পুলিশকে হুঁশিয়ারি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার হুগলির বলাগড়ে বিধানসভা নির্বাচন। বৃহস্পতিবার (০৮ এপ্রিল) প্রচারের শেষ দিনে সেখানে সভা করতে গিয়ে রাজ্য পুলিশের একাংশকে নিশানা করে মমতা বলেন, ‘অনেক জায়গায় পুলিশ ঠিকঠাক কাজ করছে না খবর পাচ্ছি। ছেলেদের ভয় দেখাচ্ছে। এফআইআর করবেন। এফআইআর না নিলে আমাদের জানাবেন।’

পুলিশ ভয় দেখালেও লাইন করে ভোট দেবেন। বাংলার পুলিশ মাথা নত করবেন না। শান্তি বজায় রাখবেন। কোটি কোটি টাকায় কাউকে কিনে নেওয়া হচ্ছে। আমাদের কাছে সব খবর আছে। অনেকে চরিত্র বদল করেছেন, রুপ বদল করেছেন। শান্তি-শৃঙ্খলার মাধ্যমে ভোট করাবেন। ” শুধু এদিন বলাগড়ের সভা বলে নয়, ইদানিং প্রত্যেকটি জনসভা থেকে মুখ্যমন্ত্রী কেন্দ্রীয় বাহিনীর পাশাপাশি রাজ্য পুলিশের একাংশকে আক্রমণ করছেন। একদিন আগেই তিনি আরামবাগ থানার ওসির ভূমিকা নিয়ে সরাসরি প্রশ্ন তুলেছিলেন।

বলাগড়ে তৃণমূল প্রার্থী হয়েছেন মনোরঞ্জন ব্যাপারী। তাঁর সমর্থনে এদিন সভা করেন তিনি। সভায় ভিড় ভালো হয়েছিল। সেখানে মমতার নিশানায় মূলত ছিল বিজেপি। সেইসঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীকেও তোপ দেগেছেন তিনি। মমতা বলেন, ” আমরা চাই মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিন। কিন্তু বিজেপি কী করছে? বাইরে থেকে গুন্ডা নিয়ে আসছে। কোটি কোটি টাকা ছড়াচ্ছে। আমার মা, ভাই বোনদের গায়ে হাত দিচ্ছে।

মেয়েরাই এবারের নির্বাচনের সবচেয়ে বড় ভূমিকা নেবে। নতুন প্রজন্মকে বলছি, এত ভয় কিসের তোমাদের? মা-বোনেদের দিয়ে গুণ্ডাদের তাড়াবেন। ওরা ইভিএম খারাপ করে দেবে। তাতে বাড়ি চলে আসবেন না। একদিন কষ্ট করে পান্তা ভাত খেয়ে থাকবেন। কিন্তু ভোটটা দিয়ে আসবেন। নাহলে আসামের মতো পশ্চিমবঙ্গেও বিজেপি এনআরসি চালু করবে। সবাইকে তাড়িয়ে দেওয়া হবে। আপনাদের টাকা দেবে, আগের দিন রাতে মদ খাইয়ে দেবে।

কিন্তু টাকাটা নিয়ে নেবেন। নিজের মতো খরচ করবেন। তবে ভোট বিজেপিকে দেবেন না।” এদিন মমতার মুখে উঠে আসে স্থানীয় সমস্যার কথা। তিনি বলেন, ” ইটভাটা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল আদালতের রায়ে। আমি আইন কানুন মেনে সেগুলি খোলার ব্যাপারে উদ্যোগ নিয়েছিলাম।” মমতার মুখে উঠে আসে গুপ্তিপাড়ার রথের প্রসঙ্গ। জগন্নাথদেবের মন্ত্র আওড়ান তিনি। উল্লেখ্য গত লোকসভা নির্বাচনের ফলের ভিত্তিতে বলাগড় বিধানসভায় তৃণমূল অনেকটা পিছিয়ে ছিল বিজেপির চেয়ে। তাই এদিন মমতা চড়া মেজাজেই বিজেপির বিরোধিতা করেছেন।

পিসিসি