এগোচ্ছে ভোট, বাড়ছে জেলা জুড়ে অশান্তিও

।। শর্মিলা মিত্র ।।

বিধানসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে তত বিভিন্ন জেলাজুড়ে বাড়ছে অশান্তি। এবার, আবারও তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠল বিজেপি কর্মীকে মারধর করার। মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাটি ঘটে কোচবিহারে পানিশালা গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। ওই এলাকার বিজেপির মাইনরিটি মোর্চা জেলা কমিটির সদস্য মন্টু মিয়াকে লোহার রড দিয়ে মারার অভিযোগ উঠল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।

জানা গিয়েছে, বালাসি থেকে বাড়ি ফেরার পথে হঠাৎই তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বাইক নিয়ে তাড়া করে বিজেপির মাইনরিটি মোর্চা জেলা কমিটির সদস্য মন্টু মিয়াকে। অভিযোগ, তাকে রাস্তায় আটকে মারধর করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। সেখান থেকে নিজের প্রাণ বাঁচাতে অন্য বিজেপি কর্মীর বাড়িতে আশ্রয় নিলেও সেখানেও তাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর সেখান থেকে মন্টু মিয়াকে কোচবিহারের মহারাজা জিতেন্দ্র নারায়ান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আরো পড়ুন : ভোটের মুখে ফের বোমাবাজি, উত্তপ্ত কাঁকিনাড়া!

এই বিষয়ে নাটাবাড়ি বিধানসভার কনভেনার শুভাশিস চৌধুরী জানান, একজন মাইনোরিটি লোক ভারতীয় জনতা পার্টি করে বলে দীর্ঘদিন থেকে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাকে অত্যাচার করে আসছে। এবং তাকে বলা হচ্ছে সে মুসলমান হয়ে কি করে বিজেপি করে এবং এরপর, আজ তাকে প্রানে মারার চেষ্টা করা হয়েছে বলেও জানান শুভাশিস চৌধুরী।

বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হয়েছে এবং পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। পুলিশ যদি নিরপেক্ষ ভাবে তদন্ত না করে তাহলে তাদের রাস্তায় বেরিয়ে মানুষের দ্বারস্থ হতে হবে বলে জানান নাটাবাড়ি বিধানসভার কনভেনার শুভাশিস চৌধুরী। যদিও এই বিষয়ে তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক খোকন মিয়া জানান, বিজেপি ঘোলা জলে মাছ ধরার চেষ্টা করছে তাই তৃণমূলের উপর দোষারোপ করছে। এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোন যোগ নেই বলার পাশাপাশি কোচবিহারে বিজেপি নেতা কেউ এমন নেই যে তাদের উপর আক্রমণ হবে, বলেও জানান তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক খোকন মিয়া

Categories