Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

উলটপুরাণ, প্রচুর বুথে বিজেপির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ, নিশানায় কেন্দ্রীয় বাহিনীও

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

মঙ্গলবার সকাল থেকেই তৃতীয় দফার ভোটে অশান্তির খবর আসতে শুরু করেছে বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে। সময় যত গড়িয়েছে, ততই দেখা যায় অশান্তি হচ্ছে হাওড়া, হুগলি এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার বিভিন্ন বিধানসভা কেন্দ্রের অসংখ্য বুথে। বিরোধীদের অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের পরিবেশ সৃষ্টি করে ভোটারদের ভোট দিতে দিচ্ছে না। আবার প্রধান বিরোধী দল বিজেপির বিরুদ্ধে একই অভিযোগে সরব হয়েছে তৃণমূল। এর পাশাপাশি কেন্দ্রীয় বাহিনীর একাংশের বিরুদ্ধে প্রচুর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলের পক্ষ থেকে।

বেলা ১১টা পর্যন্ত হুগলির তারকেশ্বরে মোটের ওপর ভোটগ্রহণ সুষ্ঠুভাবেই হয়েছে। যদিও এই বিধানসভার ২৬০ ও ২৬০-এ নম্বরের দুটি বুথে বিজেপির বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূলকে। তৃণমূলের অভিযোগ হার নিশ্চিত জেনে বিজেপি এটা করছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার সাতগাছিয়ার ৩৬ নম্বর বুথে সিপিএমের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তারা বয়স্ক ভোটারদের সঙ্গে অসহযোগিতা করছে। এই ঘটনায় সেখানে বিক্ষিপ্ত উত্তেজনা দেখা যায়। জেলার ফলতা বিধানসভা কেন্দ্রের ১৮৯ নম্বর বুথের সামনে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে তারা নাকি বিজেপিকে ভোট দিতে বলছে ভোটারদের।

সেখানে লাইনে দাঁড়ানো ভোটারদের একটা অংশ সোচ্চার হয়েছেন জওয়ানদের বিরুদ্ধে। কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে ডায়মন্ড হারবারেও। সেখানে ৫৩ নম্বর বুথের ২০০ মিটার দূরে তৃণমূল ক্যাম্প করতে পারছে না বাহিনীর বাধায়, এমন অভিযোগ উঠেছে। আরামবাগ বিধানসভা কেন্দ্রের ২৬৩ নম্বর বুথে বিজেপি সংখ্যালঘু ভোটারদের ভোট দিতে বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। যদিও বিজেপি সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

আরো পড়ুন : কালো গ্লাভস পরে এসেছিল তখন ঘুটঘুটে রাত, গোঘাটে খুন বিজেপি সমর্থক

বিজেপি ও কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ এখানেই থেমে নেই। গোঘাট বিধানসভা কেন্দ্রের ১২৪ ও ১২৪-এ দুটি বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তারা নাকি বুথের ভেতরে ঢুকে ভোট প্রক্রিয়ায় অসুবিধার সৃষ্টি করেছে। এর পাশাপাশি সাতগাছিয়ার ২৮১ নম্বর বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী তৃণমূলের ভোটার স্লিপ হাতে থাকলে ভোটদানে বাধা সৃষ্টি করেছে বলে অভিযোগ। যদিও প্রশাসনের মতে, ভোটার স্লিপে কোনও দলের প্রতীক চিহ্ন থাকতে পারে না। এই বিষয়টি নিয়ে সেখানে অশান্তি তৈরি হয়।

হুগলির জাঙ্গিপাড়ার ২১৬ নম্বর বুথের এক তৃণমূল এজেন্টের ফর্ম ঠিকঠাক পূরণ করা হয়নি বলে অভিযোগ ওঠে। সেই বিষয়টি নিয়ে বুথের মধ্যে বচসা তৈরি হয় বিজেপির সঙ্গে। হাওড়ার শ্যামপুরের ১৭৩ নম্বর বুথের অদূরে তৃণমূলের ক্যাম্প বিজেপি এবং সিআরপিএফ ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সবমিলিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ উঠেছে তিনটি জেলার অসংখ্য বুথে। যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জেলা বিজেপি নেতৃত্ব।