তৃণমূল নেতাকে গুলি, খুনের চেষ্টার মামলা অর্জুনের বিরুদ্ধে

।। রাজীব ঘোষ ।।

আমি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের পুলিশ আমার বিরুদ্ধে ৮৭টি ফৌজদারি মামলা করেছে। এটা নিয়ে ৮৮ টি হলো। সবাই জানে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটেছে তৃণমূলের ভিতরে টাকা পয়সার গন্ডগোল নিয়ে। দিনের বেলায় গুলি চলেছে। যে জায়গায় ঘটনা ঘটেছে সেখানে সিসিটিভি রয়েছে। পুলিশ চাইলে এক মিনিটেই দুষ্কৃতী ধরে ফেলতে পারে। তার বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার মামলা নিয়ে এই কথা বলেন ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং।

কাকিনাড়ার তৃণমূল নেতা ধর্মেন্দ্র সিং ওরফে ধরুয়া কে গুলি করে পালায় দুষ্কৃতীরা। গুরুতর অবস্থায় বাইপাসের ধারে একটি হাসপাতালে ধরুয়াকে ভর্তি করা হয়েছে। কাকিনাড়া আর্য সমাজ মোড়ে তৃণমূল কর্মীকে গুলি করার ঘটনায় নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং এর বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার মামলা রুজু করেছে পুলিশ।

গুলি চালানোর ঘটনা নিয়ে তৃণমূলের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা সভাপতি এবং খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেছেন অর্জুনের লোকজন ধরুয়াকে গুলি করেছে। অর্জুন নিজে ২০০ লোককে খুন করেছে। সমস্ত অপরাধীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা হবে। বিজেপির ছাতার তলায় গিয়ে অর্জুনের রক্ষা হবে না। জানা গিয়েছে ধরুয়া দীর্ঘদিন ধরেই তৃণমূল করেন। অর্জুন সিং এর ঘনিষ্ঠ ছিলেন।

অর্জুন বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর তিনি বিজেপিতে গেলেও পুরনো দলে ফিরে আসেন। গত লোকসভা নির্বাচনের সময় থেকেই বেশ কিছুদিন ধরে ভাটপাড়া জগদ্দল কাকিনাড়া সহ ব্যারাকপুরের বিস্তীর্ণ এলাকায় গন্ডগোল চলছে। অর্জুন সিং বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকায় রাজনৈতিক সংঘর্ষ হচ্ছে। এই গুলি চালানোর ঘটনায় ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।