Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘তৃণমূল বিদায় নিচ্ছে ‘, একদম নিশ্চিত স্মৃতি ইরানি


।। ময়ুখ বসু ।।


দিদি যেভাবে ভোটের আগে থাকতেই দেশের প্রতিটি রাজনৈতিক দলকে চিঠি লিখে লিখে বিজেপির বিরুদ্ধে জোট গড়তে চাইছেন তাতেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে এবারের নির্বাচনে বাংলা থেকে তৃণমূল সরকার বিদায় নিচ্ছে। দিদির পদক্ষেপই বলে দিচ্ছে, দিদি বাংলার মসনদ হারাতে চলেছেন।

এদিন তৃতীয় দফার ভোটের মধ্যেই বীরভূমের সিউড়িতে ভোট প্রচারে আসেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। ভোট প্রচারে এসে তৃণমূলের বিরুদ্ধে রীতিমতো তোপ দাগলেন স্মৃতি ইরানি। তিনি বলেন, বাংলায় আর তৃণমূল ফিরে আসবে না।

এবারের ভোটেই তৃণমূল বাংলা থেকে চলে যাচ্ছে, আর বাংলায় বিজেপি সরকার তৈরি হচ্ছে। বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলেই বাংলায় ন্যায় প্রতিষ্ঠা হবে। সোনার বাংলা তৈরি হবে। এবারের ভোটে যে তৃণমূল আর ফিরে আসতে পারবে না সেটা বুঝেই এখন থেকে ভয় পেতে শুরু করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি এখন থেকেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলির কাছে চিঠি লিখে বিজেপি বিরোধী জোট গড়তে চাইছেন। কারণ, আগামী দিনে তাঁকে যে বিরোধী আসনে বসতে হচ্ছে তা তিনি এখন থেকেই বুঝে গিয়েছেন। একুশের ভোটে বাংলায় সাফ হয়ে যাবে তৃণমূল। বাংলার মানুষ বিজেপিকে ক্ষমতায় আনার জন্য প্রতিজ্ঞা নিয়ে ফেলেছেন।

স্মৃতি ইরানি বলেন, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনে বাংলায় গুন্ডারাজ কায়েম করেছিলো তৃণমূল কংগ্রেস। সেই স্মৃতি আজও বাংলার মানুষ ভুলতে পারেননি। বীরভূম সহ বাংলায় প্রায় প্রতিটি জেলায় সাধারণ মানুষকে তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে দেয়নি এই তৃণমূল। তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী গণতন্ত্রের টুঁটি চেপে হত্যা করেছিলো। কিন্তু এবারে আর তা হবে না।

বাংলায় ইতিমধ্যে অনুষ্ঠিত হওয়া তিন দফা ভোটেই বুঝতে পেরে গেছে তৃণমূল। এবারে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী আর নিজেদের ইচ্ছামতো ভোট করাতে পারবে না। তিনি সরাসরি তৃণমূলের দিকে আঙুল তুলে বলেন, যারা এই বাংলার মাটিতে আমাদের কর্মীদের রক্ত নিয়ে খেলা করেছে, বিজেপি সরকারে এলে তারা কেউই নিস্তার পাবে না। তাদের প্রত্যেককে শ্রীঘরে যেতে হবে।