Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আজই দ্বিতীয় দফার মহড়ার ভ্যাকসিন আসছে রাজ্যে, টিকাকরণের প্রস্তুতি জেলায় জেলায়

।। সুদীপা সরকার ।।

অবশেষে অপেক্ষার অবসান। মানসিকভাবে কিছুটা স্বস্তি পেতে চলেছে রাজ্যবাসী। আজ শুক্রবার রাজ্যে আসতে চলেছে করোনার ভ্যাকসিন।কিন্তু কোন ভ্যাকসিন আমাদের রাজ্যে আসছে তা নিয়ে অনেকের মধ্যেই রয়েছে নানান রকম কৌতুহল। জানা গিয়েছে রাজ্যে দ্বিতীয় দফার মহড়ায় রাজ্যে আসছে কোভিশিল্ড।ভ্যাকসিন গুলি রাখা থাকবে দুই থেকে আড়াই ডিগ্রির তাপমাত্রার কোল্ড চেইন সিস্টেম এ। জানা গিয়েছে বাগবাজারের স্বাস্থ্য দপ্তরের স্টোরে রাখা থাকবে ভ্যাকসিন। পরে প্রয়োজন মত ব্যাবহার করা হবে। দ্বিতীয় দফায় টিকাকরণের মহড়ায় কেন্দ্র একটি কোউইন নামে অ্যাপ তৈরি করেছে।

যারা করোনার টিকা নিতে আগ্রহী তারা এই অ্যাপে এ রেজিস্ট্রেশন করে আবেদন জানাতে পারবেন। ভারতবর্ষের দুটি করোনার ভ্যাকসিন এখনও পর্যন্ত অনুমোদন পেয়েছে। ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড ও ভারত বায়োটেকের কো ভ্যাকসিন জরুরী ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমতি পেয়েছে।
কলকাতার সব মেডিকেল কলেজে হবে ড্রাইরান। এছাড়া কলকাতা পুরসভার ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ক্লিনিকেও হবে মহড়া। তবে আজ থেকে শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয় দেশের অন্যান্য সব রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে আজ হবে ভ্যাকসিনের ড্রাইরান। জেলার মেডিকেল কলেজ ছাড়াও আরও দুটি করে কেন্দ্র থেকে চলবে টিকাকরণের মহড়া।

আরো পড়ুন : আবার অনুমতি নিয়েই গন্ডগোল, জেপি নাড্ডার মিছিল হবে তো সুষ্ঠুভাবে?

সারা রাজ্যের পাশাপাশি নদীয়ার কৃষ্ণনগর সদর হাসপাতালে শুরু হয়ে গিয়েছে টিকাকরণের প্রস্তুতি। গ্রামীণ হাসপাতাল নবদ্বীপ স্টেট জেনারেল হাসপাতালে মক ড্রিল্ বা ড্রাই রান চলবে বলে জানালেন নদীয়া জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ড অপরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়।সম্পূর্ণভাবে নতুন এই কোভিড ১৯ সাধারণ মানুষের শরীরে প্রয়োগ করার আগে বেশ কয়েকটি পদ্ধতির মধ্য দিয়ে টিকাকরণ পর্বটি সম্পন্ন করতে হবে। তারই প্রক্রিয়াকরণ শুরু হলো শুক্রবার থেকে এ দিন জানান মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক। এরপর সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেলার অভ্যন্তরে প্রতিটি প্রান্তে টিকাকরণের কর্মসূচি চলতে থাকবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।তবে শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয় দেশের অন্যান্য সব রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আজ থেকে শুরু হবে ভ্যাকসিনের ড্রাইরান।