Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আজ নজরে দক্ষিণ ২৪ পরগণা, এখানে আছে আইএসএফ কাঁটা


।। ময়ুখ বসু ।।


আজ রাজ্যে তৃতীয় দফার বিধানসভা নির্বাচন। হাওড়া ও হুগলি জেলার পাশাপাশি তৃতীয় দফার ভোটে অন্যতম নজর থাকবে রাজ্যের দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার দিকে। কারণ, এই দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যতন দুর্ভেদ্য দুর্গ বলেই পরিচিত। তবে এবারের নির্বাচন দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার বহু রাজনৈতিক অঙ্ককে পাল্টে দিতে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল। এবারে এই দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলায় অন্যতম ফ্যাক্টর হয়ে উঠতে পারে আব্বাস সিদ্দিকির দল ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট (আইএসএফ)। মূলত এই জেলার মুসলিম ভোটব্যাঙ্ককে সামনে রেখে আব্বাস সিদ্দিকির দল হয়ে উঠতে পারেন অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলির কাছে সবথেকে বড়ো চ্যালেঞ্জ।

এবারে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার অন্যতম নজরকাড়া কেন্দ্র হয়ে উঠেছে ভাঙড়। এই কেন্দ্রে জোট প্রার্থী হিসাবে ভোটে লড়ছেন আইএসএফ নেতা তথা আব্বাস সিদ্দিকির ভাই নৌসাদ সিদ্দিকি। মনে করা হচ্ছে, ভাঙড়ে ৭০ শতাংশ মুসলিম ভোটারকে সামনে রেখে মূলত হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে আইএসএফ এবং তৃণমূলের মধ্যে। সংযুক্ত মোর্চার তরফে আইএসএফ প্রার্থী দিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার ভাঙড়, মন্দিরবাজার এবং কুলপি বিধানসভা আসনে। এই দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার একটি বড়ো অংশ জুড়ে রয়েছে সংখ্যালঘু মানুষের বাস।

সেই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মধ্যে আব্বাস কতটা থাবা বসাতে পারবেন নাকি আদৌ পারবেন না সেটা যেমন বড়ো বিষয় হয়ে উঠতে পারে, তেমনি তৃণমূল কতটা তাদের ভোটব্যাঙ্ক এবারে ধরে রাখতে পারে সেটাও অন্যতম বিষয় হয়ে থাকছে। পরিসংখ্যান মতে গোটা দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলা জুড়ে প্রায় ৩৬ শতাংশ সংখ্যালঘু মানুষের বাস। যার মধ্যে এই জেলার অধিকাংশ আসনেই ভোটগ্রহণ হবে আজ। সেক্ষেত্রে এই জেলার সংখ্যালঘু মানুষরাই বহু প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণে একটা বড়ো ভূমিকা নিতে পারেন। যারমধ্যে ভাঙড়, বারুইপুর, কুলপি, মহেশতলা এবং মগরাহাট বিশেষভাবে তাৎপর্যপূর্ণ আসন।

রাজনৈতিক মহলের ধারণা, এই জেলায় এবারে সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্কের পাশাপাশি আর একটি ফ্যাক্টর হয়ে উঠতে পারে আম্ফান পরবর্তী পরিস্থিতি। যেখানে দাঁড়িয়ে তৃণমূলের আম্ফান দুর্নীতি মূলত রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রসের কাছে বুমেরাং হয়ে ওঠার একটা সম্ভাবনা থাকছে বলেও রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ মনে করছেন। আর ঠিক এই জায়গায় দাঁড়িয়ে আম্ফান দুর্নীতির ফলায় শান দিতে ছাড়েনি বিজেপি এবং আইএসএফ।

আম্ফান পরবর্তী সময়ে সিপিএম নেতা কান্তি গাঙ্গুলির ত্রাণ নিয়ে অক্লান্ত পরিশ্রমের চালচিত্রের সঙ্গে এবারে মুসলিম ভোটারদের অঙ্ক মিলেমিশে জোটের এবারে আইএসএফ বেশ খানিকটা সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। অন্যদিকে, ধর্মীয় মেরুকরণের তাস খেলে এই জেলায় বিজেপিও তাদের শক্তি বেশ খানিকটা বাড়িয়ে নিয়েছে। আর এমন পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলায় তৃতীয় দফার ভোটে ভোট অঙ্ক কোন দিকে গড়াবে তা নিয়ে কৌতূহল থেকেই যাচ্ছে।