দালালদের জন্য বিরোধিতা, তৃণমূলটা উঠে যাবে: সায়ন্তন

1 min read

বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু কৃষি বিল প্রসঙ্গে মন্তব্য করেন, এই বিল নিয়ে যে সমস্ত অভিযোগ তোলা হচ্ছে সেগুলো সম্পূর্ণ মিথ্যা। বলা হচ্ছে এমএসপি তুলে দেওয়া হবে, কৃষক তার জমির অধিকার হারাবে, কৃষি মান্ডি বন্ধ করে দেবে, যদিও পশ্চিমবঙ্গের কৃষি মান্ডি তৈরি হয়েছিল তৃণমূল নেতাদের ইট বালি চুন-সুরকি সাপ্লাই করার জন্য।

তিনি আরো বলেন স্বাধীনতার ৭৩ বছর পরে কৃষকরা স্বাধীনতা পাচ্ছে। কৃষকরা আলু বিক্রি করেছেন ৫ টাকায় কোচবিহারে বিক্রি হয়েছে ৪০ টাকায়, মাঝখানের এই টাকাটা ফড়ে, দালালরা নিয়েছে। দালালরা তৃণমূল কংগ্রেসকে ফান্ডিং করেছে। আগে সারদা, কাটমানি দিয়ে তৃণমূলের ফান্ডিং হতো এখন দালালরা সেটা করছে। ফলে এদের ফান্ডিং বন্ধ হয়ে যাবে তাই তৃণমূল কংগ্রেস এত বিরোধিতা করছে।

এরপরে পিকের সংস্থা নিয়ে তৃণমূল বিধায়কের করা মন্তব্যের প্রসঙ্গে সায়ন্তন বলেন তৃণমূল কংগ্রেস এখন ঠিকাদারদের মাধ্যমেই চলে। জনগণের টাকা থেকে সাড়ে ৫০০ কোটি টাকা দিয়েছে। এই টাকা করোনার কাজে লাগলে ভালো হতো। পিকে এই টাকা নিয়েছে তৃণমূলকে ক্ষমতায় নিয়ে আসার জন্য।

আরো পড়ুনঃ বিষয় বাজেট, তৃণমূলের দিকে সহযোগিতার হাত বাড়াল বিজেপি

মোদীজি কৃষকদের জন্য যে টাকা দিচ্ছেন সেটা এখানকার কৃষকরা পাচ্ছেন না। মুখ্যমন্ত্রী চেয়েছেন তাদের মাধ্যমে দেয়া হোক যাতে কাটমানি তৃণমূল পায়। সরকার যে দিন ক্ষমতায় আসবে সেদিন কৃষকদের জন্য যে বকেয়া টাকা রয়েছে সমস্ত তাদের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়ে দিলেন সায়ন্তন বসু।

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রসঙ্গে তিনি বলেন তৃণমূল দলটা উঠে যাবে। কোচবিহারে তৃণমূল কংগ্রেস কিছু দুষ্কৃতিকারী আর গরু পাচারকারীদের দল, এর মধ্যে কিভাবে ভালো লোক যুক্ত হয়ে আছে সন্দেহ আছে। এদিন কৃষি বিল এর সমর্থনে তিনি এক দলীয় কর্মসূচিতে উপস্থিত হন। বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি কৃষি বিলের বিরোধিতা করছে। সেই প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখেন সায়ন্তন বসু।