বাবুলকে মানহানির নোটিশ তৃণমূলের এই সাংসদের

।। প্রথম কলকাতা ।।

কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে মানহানির আইনী নোটিশ পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো ও তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

মহালয়ায় ফেসবুক লাইভে ভাষণ দিয়েছিলেন অভিষেক। সেখানে তিনি বলেছিলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর অমানবিক, অক্লান্ত পরিশ্রমে বাংলার একাধিক প্রকল্প বিশ্বের দরবারে সম্মানিত হচ্ছে।“

অভিষেকের ভাষণের এই অংশ তুলে ধরে বাবুল টুইট করেছিলেন, “মুখ ফসকে সত্যি কথাটা বেরিয়ে গেছে – ‘অমানবিক মুখ্যমন্ত্রী’  আমি একটুও আশ্চর্য নই যে এটা পোস্ট করা ভিডিওতে রয়ে গেছে। কারণ যারা এটা শ্যুট করেছে তারাও ‘অমানবিক মুখ্যমন্ত্রী’ দিদির অমানবিক তৃণমূলী দুষ্কর্মে এতটাই লিপ্ত যে, ভুল করে বেরিয়ে যাওয়া এই সত্যটি ধরতেই পারেনি।“

মানহানির নোটিশে অভিযোগ করা হয়েছে, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী সম্পর্কে তৃণমূলের যুবার সভাপতি ও সাংসদের ভাষণের “আমাদের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর অমানবিক ও অক্লান্ত পরিশ্রমে” অংশটির কাটছাঁট করে আলাদা করে দুটি শব্দ বেছে নিয়ে বিকৃতভাবে টুইট করেছেন বাবুল। উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এই মিথ্যা মন্তব্যে অভিষেকের সম্মনহানি হয়েছে। জনগণের কাছে ভুল বার্তা দেওয়া হয়েছে।

বাবুল ৭২ ঘণ্টার মধ্যে টুইট মুছে ফেলে ক্ষমা না চাইলে দেওয়ানি ও ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত করা হবে বলে মানহানির নোটিশে বলা হয়েছে।

আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় এই নোটিশকে কোনও গুরুত্ব দিতে চাননি। তিনি বলেছেন, “অভিষেক হতাশা থেকেই নোটিশ পাঠিয়েছেন। তাঁর আরও অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রী যে কতটা অমানবিক, তা বাংলার মানুয জানে। তারা তাই বদল আনবে।“