Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

এবার অভিষেকের গড়ে শোভনের হানা, নজরে ডায়মন্ড হারবার

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন বহুদিন আগেই। কিন্তু কোনো এক অজ্ঞাত কারণে এতদিন সক্রিয় হননি। অবশেষে গেরুয়া শিবিরে সক্রিয় ভাবে দেখা যাচ্ছে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। সেই সঙ্গে তাঁর বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় একইভাবে সক্রিয় হয়ে পথে নেমেছেন। সদ্য গোলপার্ক থেকে সেলিমপুর পর্যন্ত রোড শো করেছেন শোভন- বৈশাখী। সেদিন থেকেই সক্রিয়ভাবে বিজেপির হয়ে পথে নেমেছেন তিনি। এবার ফের একটি রোড শো করতে চলেছেন তিনি। বিজেপি সূত্রে খবর, সামনের সপ্তাহের প্রথম দিকে শোভন তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) নির্বাচনী কেন্দ্র ডায়মন্ড হারবারে রোড শো করতে চলেছেন।

সোমবার সেই কর্মসূচি হতে পারে। অভিষেকের গড়ে শোভনের তৎপরতা ঘিরে রাজ্য রাজনীতি রীতিমতো জমে উঠছে। উল্লেখ্য তৃণমূলে থাকার সময় দীর্ঘদিন ধরেই কলকাতা এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার সভাপতির পদে ছিলেন তিনি। স্বাভাবিকভাবে এই দুটি জেলার নিচুতলার পাশাপাশি জেলা নেতৃত্বের একটা বড় অংশের সঙ্গে তাঁর এখনও নিবিড় যোগাযোগ রয়েছে। সেটা প্রমাণ হয়ে গিয়েছে যখন দেখা যায় ডায়মন্ড হারবার কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক দীপক হালদার কলকাতায় এসে গোলপার্কে গিয়েছিলেন শোভনের সঙ্গে দেখা করতে। দীর্ঘক্ষণ বৈঠক করেন তাঁরা।

সূত্রের খবর, শীঘ্রই বেশ কয়েকজন তৃণমূলের বিদায়ী কাউন্সিলর, অধ্যাপক এবং দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার পরিচিত নেতাদের একাংশ শোভনের হাত ধরে বিজেপিতে যোগদান করতে চলেছেন। তাই সোমবার রাজ্য রাজনীতির নজর পুরোপুরি যে ডায়মন্ড হারবারে ওপরেই থাকবে, তা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই। কলকাতা সাংগঠনিক জোনের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছে শোভনের হাতে। সহকারি আহ্বায়কের দায়িত্ব পেয়েছেন বৈশাখী। এই জোনের মধ্যে পড়ছে কলকাতা এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার সমস্ত বিধানসভা কেন্দ্র।

আরো পড়ুন : এই ধরণের জনবিরোধী বিল কোনও সরকার আনতে পারে ভাবতেও পারি না, কটাক্ষ কাকলির

এর পাশাপাশি দমদম তথা উত্তর শহরতলির নটি বিধানসভা কেন্দ্র এর মধ্যে পড়ছে। সব মিলিয়ে রয়েছে ৫২ টি আসন। গত লোকসভা নির্বাচনে ফলের ভিত্তিতে এই আসনগুলিতে বিজেপি তেমন সুবিধা করতে পারেনি। যদিও তাদের ভোট বৃদ্ধি হয়েছে অনেকটাই। কিন্তু অধিকাংশ ক্ষেত্রে বিধানসভা ভিত্তিক ফলে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। দক্ষিণ ২৪ পরগনার সমস্ত বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি পিছিয়ে রয়েছে। তাই শোভন যখন ডায়মন্ডহারবার দিয়ে তাঁর দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা সফর শুরু করছেন, তখন অবশ্যই সেটা বেশ ইঙ্গিতবাহী হতে চলেছে।

সেলিমপুরে সেদিন রোড শো শেষ হওয়ার পর শোভন, বৈশাখী পথসভায় বক্তব্য রাখেন। সেখানে শোভন তীব্র আক্রমণ করেছিলেন তৃণমূলকে। কম যাননি বৈশাখীও। তিনি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নাম না করে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেছিলেন, একজন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখতে গিয়ে শোভনকে আপনি দূরে ঠেলে দিয়েছিলেন। অর্থাৎ দু’পক্ষের সংঘাত এখন পুরোপুরি তুঙ্গে। এই অবস্থায় সোমবার ডায়মন্ডহারবার যাচ্ছেন শোভন-বৈশাখী। সেখানে তাঁরা কি বার্তা দেন, সে দিকেই চোখ থাকবে রাজনৈতিক মহলের।