Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বাগবাজার অগ্নিকান্ডে সর্বহারাদের ব্যথা বোঝার কেউ নেই, শুরু কথার পিঠে কথার রাজনীতি

1 min read

।। সুদীপা সরকার ।।

বাগবাজারে গতকাল অগ্নিকাণ্ডে ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। মাত্র ১ ঘন্টার মধ্যেই বস্তির সম্পূর্ণ অংশ পুড়ে যায়। আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় বাগবাজারের বস্তি গুলি। স্থানীয়দের একাংশ অভিযোগ তুলেছিল খবর দেওয়ার এক ঘন্টা পরে এসে পৌঁছেছে দমকল। এই প্রসঙ্গে আজ বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন দমকলমন্ত্রী পাশেই থাকেন। এ ধরনের ঘটনার পিছনে কোন চক্রান্ত থাকে সবসময়। বড়বাজারেও এই ধরনের ঘটনা ঘটেছিল। বহু বাজার বস্তি জ্বলে গিয়েছে নতুন করে হাউজিং করা হবে বলে।

এই ঘটনার তদন্ত হওয়া উচিত বলে দাবি জানান আজ দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh )। তিনি অভিযোগ করেন সাধারণ গরীব মানুষের সাথে কেন বারবার এই ধরনের ঘটনা ঘটছে। দিলীপ ঘোষের দাবি রাজ্য সরকারের উচিত সঠিক তদন্ত করা। ক্ষতিগ্রস্তদের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা রাজ্য সরকারের করা উচিত বলে জানিয়েছেন তিনি। বাগবাজারের ঘটনাটি নিছক দুর্ঘটনা নাকি এর পিছনে রয়েছে বড় ষড়যন্ত্র আজ এমনটাই প্রশ্ন তোলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। যদিও বস্তিবাসীরা জানিয়েছিলেন তাদের এলাকায় আগেও দু’বার আগুন লাগানোর চেষ্টা করা হয়েছিল।

আরো পড়ুন :“বেসুরো”শব্দ আর ব্যবহার না করাই ভালো, তবে কিছু বললেন শতাব্দী..

বুধবার সন্ধ্যায় বাগবাজারের বস্তিতে আগুন লাগার ঘটনায় দমকল দেরিতে আসায় স্থানীয়রা ক্ষোভে ফেটে পড়েন। তাদের সরাতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। সাতাশটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালায়। আবার অন্যদিকে গুরুং পন্থী কয়েকজন নেতা যোগ দিয়েছেন পদ্ম শিবিরে। এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন পাহাড়ের তৃণমূল ছিল না থাকবেও না। অন্যের কাঁধে ভর করে যারা বন্দুক চালাতে যাবে তাদের এই অবস্থা হবে। আগামী কিছুদিনের মধ্যে বিজেপিতে অনেক নেতা যোগদান করবেন বলে দাবি জানায় দিলীপ ঘোষ।