Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কলকাতাতেই আসল খেলা হবে, হুঙ্কার দিলীপ ঘোষের

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে আজও ইকোপার্কে প্রাত:ভ্রমণের পাশাপাশি শরীরচর্চা করেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। গত দুই দফা ভোটে এখনও পর্যন্ত কিরকম খেলা হল ? এই প্রশ্ন সাংবাদিকরা করলে, দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘আমরা যেরকম চেয়েছিলাম সেইরকম খেলা হয়েছে। আমরা খেলেছি বাকিরা মাঠের বাইরে হয়ে গেছে দুই পর্যায়ে। আর তৃতীয় পর্যায়ের পরে মাঠে নামার সাহস করবেনা’। বলে মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। পাশাপাশি তাঁর মন্তব্য, ‘আসল খেলাটা এবার কলকাতায় হবে’।

তৃতীয় দফার ভোট অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গড়ে। এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে, দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, ‘যেখানেই হোক পশ্চিমবাংলায় আজকাল কারোর কোনো গড় নেই । মানুষ ঠিক করে নিয়েছে তারা বেরোচ্ছে রাস্তায় । রবিবার দক্ষিণ ২৪ পরগণায় প্রচার করেছি বাসন্তী থেকে আরম্ভ করে মগরাহাট পর্যন্ত ব্যাপক জনসমাগম সাধারণ মানুষের উচ্ছাস। এতেই প্রমাণ হয়ে গেছে কোন কিছুর ভয় নেই সমস্ত কিছু উপেক্ষা করে ভোট দেবে এবার।’ বলে জানান দিলীপ ঘোষ।

‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন সে যদি ইচ্ছে করে সরে তবেই তাকে সরানো যাবে নতুবা নয়’ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মন্তব্য তুলে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ওনার ইচ্ছায় উনি আসেননি পাবলিকের ইচ্ছা এসেছেন। পাবলিকের ইচ্ছায় উনি যাবেন। সেই জন্য ওনার ইচ্ছা-অনিচ্ছার কোনো মূল্য নেই। উনি কি বলছেন কি করছেন তাতে কি আসে যায় কার ? মানুষ ওনাকে সুযোগ দিয়েছে দশ বছর তিনি তার ইচ্ছেমত করেছেন মানুষ এবার ইচ্ছেমতই করবে’ বলে মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ।

তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে, অরূপ বিশ্বাসের হয়ে জয়া বচ্চনের প্রচারের বিষয়, দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, ‘জয়া বচ্চনের সঙ্গে আজকের প্রজন্মের কি সম্পর্ক আছে বাংলায় ? কয়জনই বা তার নাম জানেন ঠিক করে ? সমাজবাদী পার্টির এমপি হিসেবে রাজ্যসভায় গেছেন। এটা ঠিক একসময় বাংলার মেয়ে হিসেবে অভিনয় করেছেন তাকে ভালোবাসে এখন তার কি আছে বাংলার সঙ্গে কী সম্পর্ক আছে ? বাংলার সমস্যা নিয়ে কিছু বলেছেন উনি এসেছেন এর মধ্যে ? এখন পশ্চিমবাংলায় কেউ আসতে চাইছেন না। হয়তো জয়া দিকে পটিয়ে-পাটিয়ে তারা নিয়ে এসেছেন।’ বলেও মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ।

আরো পড়ুন : কীর্তনের তালে নাচলেন রাহুল সিনহা, প্রচারে সরগরম হাবড়া

মিঠুন চক্রবর্তীর পাল্টা হিসেবে কী জয়া বচ্চন ? দিলীপ ঘোষের উত্তর, ‘কারোর পাল্টা কিছু হয় না মিঠুনদা বোম্বেতে রাজ করলেও বাংলায় তার একটা পা ছিল। গত কয়েক বছর ধরে বাংলাতে এসে টিভি প্রোগ্রাম করেছেন। শো থেকে শুরু করে সিনেমা সব করেছেন। আর আমরা দেখলাম মিঠুনদা নামার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের মধ্যে কি উন্মাদনা। ৭০ বছর পার করেছেন। সকাল নটা থেকে যেভাবে দাপিয়ে প্রচার করছেন তিনি, এটা মিঠুন চক্রবর্তীই পারে।’ বলে মন্তব্য দিলীপ ঘোষের।

বীরভূমের সভাপতি জানিয়েছেন যারা দেশদ্রোহিতা করবে তাদেরকে এনকাউন্টার করা হবে। দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘এক নম্বরে তো ওনার নামটাই আসবে তখন কি হবে ?’ বিজেপির সভাপতি এই কথা বলেছেন, বলার সঙ্গে সঙ্গে হেসে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘আমিও তো বলেছি এনকাউন্টারের কথা আমাদের মন্ত্রী ও বলেছেন এনকাউন্টার নতুন কিছু নয়। পশ্চিমবাংলায় কত লোক মারা গেছে সিপিএম করেছে টিএমসি করেছে এখন কে করবে কিভাবে করবে সেটা দেখা যাবে। দেশদ্রোহীদেরকে এখানে লালন পালন করা হয় সেই জন্য আমাদের লোকেরা বলে ফেলেন কষ্টে এটাই বাস্তব। আজকে যেভাবে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বাতিলের দাবিতে ৫০০ কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা হল একটা এফআইআর হলনা। কষ্ট তো হবেই দেশপ্রেমীদের। তাই উনি বলেছেন।

একইসঙ্গে কয়লা পাচারে ৯০০ কোটি টাকা ভাইপোর কাছে গিয়েছে। সেই টাকা বিনয় মিশ্র দিয়েছে। একটি ভিডিও ইতিমধ্যে প্রকাশ হয়েছে। এই বিষয়ে দিলীপ ঘোষের মন্তব্য, ‘ভিডিও অডিও আইনের দিক দিয়ে প্রমাণ হতে পারে কিন্তু সাধারণ মানুষ সকলেই জানে। কয়লা পাচারের টাকা কোথা থেকে কোথায় আসে। কোন গাড়িতে আসে। কে পাঠায়। সবাই জানতো। আজকে যখন ইডি সিবিআই তদন্ত করছে তখন এগুলো সামনে আসছে। আমার মনে হচ্ছে যেভাবে কাজ করছে সেন্ট্রাল এজেন্সিগুলো কাউকে জেলের বাইরে রাখবে না’। মন্তব্য বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের।