প্রকাশ্য সভা মঞ্চেই পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতিকে কড়া ধমক অনুব্রতর

।। হিমাদ্রি মন্ডল, বীরভূম ।।

আমফান মোকাবিলায় টাকা বিলি নিয়ে প্রকাশ্য সভা থেকেই বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে নানুর পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতিকে কড়া ধমক দিতে গিয়ে দেখা গেলো। বুধবার বীরভূমের নানুরের কৃষক বাজারে একটি কর্মীসভার আয়োজন করেছিল জেলা তৃণমূল কংগ্রেস। যেখানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে আমফানের প্রসঙ্গ উঠে আসে। আর সেই প্রসঙ্গ উঠে আসাকালীন জেলা সভাপতির কাছে এমন ধমক খেতে হল পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতিকে। কিন্তু কেন?

নানুরের পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি মধুসূদন পালকে এদিন অনুব্রত মণ্ডলের মঞ্চে সবার সামনে ধমক দেওয়ার পিছনে যে কারণ রয়েছে তা হল আমফানের জন্য ত্রাণ বিলি সম্পর্কিত তথ্য সঠিকভাবে দিতে না পারা। মঞ্চে বক্তব্য রাখার সময় অনুব্রত মণ্ডল মধুসূদন পালকে মঞ্চে ডাকেন। তারপর তাকে জিজ্ঞাসা করেন, ‘কত টাকা এসেছে আর কত টাকা বিল হয়েছে?’ আর হঠাৎ অপ্রস্তুত অবস্থায় বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতির মুখ থেকে এমন প্রশ্ন শুনে থতমত হয়ে পড়েন মধুসূদন পাল। আর তখনই তিনি সকলের সামনে ধমক খান।

এরপরে অনুব্রত মণ্ডল বলেন, “আমফানের টাকা এসেছে মানুষের জন্য। মানুষের কাজে লাগার জন্য। একথা মমতা ব্যানার্জি চিন্তা করে।”

প্রসঙ্গত, বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে ঠিক এই মেজাজে এর আগে অনেকবার দেখা গেছে বিভিন্ন সভামঞ্চে। কিন্তু বিগত কয়েক মাস ধরে তিনি তাঁর এই মেজাজ যেন কোথায় হারিয়ে ফেলেছিলেন। দিনকয়েক ধরে চলা কর্মিসভাগুলিতেও তাঁকে তাঁর দলীয় কর্মীদের সাথে নমনীয় ভাবে কথা বলতে দেখা গিয়েছে। এমনকি দিন কয়েক আগে পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন অঞ্চলে কর্মীসভা চলাকালীন কর্মীদের সামনে হাত জোড় করে ক্ষমা চাইতেও দেখা গিয়েছে। কিন্তু এদিন ফের তাঁকে দেখা গেল সেই পুরাতন মেজাজে।

এম/বি