৯৫ শতাংশ সমস্যা সমাধান করে প্ল্যাটিনাম পুরস্কার পেলেন মুখ্যমন্ত্রী

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

রাজ্যের সাফল্যের মুকুটে আরও একটি পালক যোগ হলো। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে গণ-অভিযোগের ব্যবস্থা চালু করেছিলেন। এখনো পর্যন্ত এই সেলে ৮ লাখ ১৬ হাজার মানুষের অভিযোগ জমা পড়েছে।এই গণ-অভিযোগের মাধ্যমে ৯৫% সমস্যার সমাধানও করা হয়েছে।

তাই মমতা বন্দোপাধ্যায়ের উদ্যোগে তৈরি হওয়া নবান্নের এই অভিনব কাজকে সম্মান জানাতে এবার দিল্লি থেকে ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া প্ল্যাটিনাম আওয়ার্ড’ পেল মুখ্যমন্ত্রীর দফতর। দিল্লির অনুষ্ঠানে স্কচ ফাউন্ডেশনের তরফে পশ্চিমবঙ্গের জন্য সর্বোচ্চ পুরস্কার ‘প্ল্যাটিনাম পুরস্কার’ ঘোষিত হল।

জনগণের অভিযোগ শোনার জন্য ২০১৯ সালে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার দফতরের অভিজ্ঞ অফিসারদের নিয়ে একটি প্রকল্প তৈরি করেছিলেন। নবান্ন সূত্রে খবর, যাঁরা মুখ্যমন্ত্রীকে অভিযোগ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন বা ই-মেল করেছেন, তারা ৯৫% ক্ষেত্রে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

মূলত স্কচ ফাউন্ডেশন এই সংস্থাটি দেশের ভাল কাজ বাস্তবায়নের জন্যই রাজ্যগুলোকে এই স্বীকৃতি দেয়। এবছর প্লাটিনাম পুরস্কারের জন্য সারাদেশ থেকে ৪ হাজার মনোনয়ন জমা পড়েছিল। প্রতিবছরই এই সংস্থার তরফে ১০ টি সিলভার, ৩ টি গোল্ড আর ১ টি প্ল্যাটিনাম পুরস্কার দেওয়া হয়। আর এ বছর এই প্ল্যাটিনাম পুরস্কারই এসেছে বাংলার ঝুলিতে। বৃহস্পতিবার এই প্রাপ্তির কথা ঘোষণা করা হয়। এর আগে ২০১৪ সালে আবগারি দফতরের ই-আবগারি ব্যবস্থা প্ল্যাটিনাম পুরস্কার পেয়েছিল।