Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দিলীপ ঘোষের ‘রগড়ে দেব’ মন্তব্যে পাল্টা দিলেন শিল্পীরা

1 min read

।। শুভ্রদীপ চক্রবর্তী ।।

বর্তমান রাজনীতিতে গ্ল্যামারের ছটা। সবুজ গেরুয়া সব দলেই খ্যাতনামা অভিনেতা-অভিনেত্রীদের ছড়াছড়ি। আর সেই খ্যাতিকে কাজে লাগিয়েই ভোটের প্রচারে ঝড় তুলছে শাসক বিরোধী দুই দলই। সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়েছে চলছে কাদা ছোড়াছুঁড়ির খেলা। সম্প্রতি দিলীপ ঘোষের এরকমই এক মন্তব্যে শোরগোল পড়ে যায় বঙ্গ রাজনীতিতে।

এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “শিল্পীদের বলছি আপনারা নাচুন, গান। ওটা আপনাদের শোভা পায়। রাজনীতি করতে আসবেন না। ওটা আমাদের ছেড়ে দিন। না হলে রগড়ে দেব।”বিজেপি রাজ্য সভাপতির এমন মন্তব্যের পর বিভিন্ন মহল থেকে নানা রকম প্রতিবাদ করা হয়। এবার দিলীপ ঘোষের ‘রগড়ে দেব’ মন্তব্যকে একহাত নিলেন টলিপাড়ার একাধিক নামজাদা কলাকুশলীরা।

অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় লিখলেন, “মাননীয় ঘােষ মহাশয়র আজকের মন্তব্য পড়ে অনেকেই জিজ্ঞেস করছেন , অনেক শিল্পী অভিনেতা তাে আপনাদের দলেও যােগ দিয়েছেন , তাদের ক্ষেত্রেও কি আপনার রগড়ানি প্রযােজ্য ? আপনাদের বলি , বুঝতে ভুল হচ্ছে আপনাদের ! উনি আসলে বলেছেন , শিল্পীদের যদি রাজনীতি নিয়ে কথা বলতে হয় , একমাত্র ওদের দলের হয়েই বলতে হবে ।

তাহলেই আর কোনাে সমস্যা রগড়ানি কিছু নেই । নিদেনপক্ষে অন্য কোনাে বিরােধী দলের হয়ে যদি বলেন , সেও ভি আচ্ছা ! কারণ সেটা শেষমেষ সিস্টেম এর ভেতরে থেকে কথা বলা হবে | প্রাতিষ্ঠানিক রাজনীতি তে সময়ের জাঁতাকলে কে কখন কাজে লাগে বলা যায় না । কিন্তু পার্টির রং স্বাধীনভাবে রাজনীতি সমাজ এসব নিয়ে ভাবনা চিন্তা করা যাবে না। ভাবনা চিন্তা যত স্বাধীন , তত সমস্যা !

ভাবলেই রাষ্ট্র শক্তির বিপদ যে ! মনে পড়ে , হীরক রাজার দেশের কথা ? ওফ উদয়ন মাস্টার , তােমার কথা যে আজ বড্ড মনে পড়ে ! বাকিটা আমার প্রিয় দেশ এবং রাজ্য বাসীর উপরেই ছাড়লাম।”পরিচালক কমলেশ্বর মারলেন এক ঢিলে দুই পাখি। ভোটের খরতাপে বিজেপি সরকারের ‘আচ্ছে দিন’ প্রতিশ্রুতি বাস্তবে কোথায়?

সোজা প্রশ্ন রাখলেন পরিচালক। ফেসবুকে লিখলেন, “রগড়ে দিলে দিন.. তবু ,সংস্কৃতি প্রশ্ন তুলবে কোথায় ‘আচ্ছে দিন’? দিলীপ ঘোষের বিতর্কিত মন্তব্যের জবাবে অঙ্কুশ সোশ্যাল সাইটে লিখলেন, ‘ইশ, যদি সব জায়গাতেই একটু উপযুক্ত শিক্ষা অথবা যোগ্যতা দেখে লোক নেওয়া হত তাহলে যে কেউ এসে শিল্পীদের রগড়ে দিয়ে যেত না..’

পিসিসি