দেখে নিন কোন টলি তারকা আপনার প্রতিবেশী!

1 min read

।। স্বর্ণালী তালুকদার ।।

মহানগরী জুড়ে সিনেমা-টেলিভিশন তারকাদের বাড়ি রয়েছে কিন্তু ঠিক কোথায় কোন গলিতে তাদের বাড়ি, তা নিয়ে মানুষের কৌতুহল কম নেই। হয়ত আপনি তার প্রতিবেশী, কিন্তু কখনও জেনেই উঠতে পারেননি। কারণ আমরা সবাই ব্যস্ত! ব্যস্ত মহানগরীর বাসিন্দাদের মধ্যেই আজকে খুঁজে নেওয়ার পালা সেই সব তারকাদের বাড়ি, যাদের আমরা টেলিভিশন কিংবা রূপোলী পর্দায় রোজ দেখি।

প্রথমেই বলে রাখি, প্রায় সব তারকাদের বাসই কিন্তু দক্ষিণ কলকাতার অলিতে গলিতে। বালিগঞ্জ থেকে অ্যক্রোপলিস, বিজয়গড় থেকে কসবা – দক্ষিণ কলকাতাই তারকাদের প্রথম পছন্দ। শুরুতে বালিগঞ্জের কথা বলেছি।

সেই বালিগঞ্জ থেকেই শুরু হবে আজকের সফর। বালিগঞ্জ ফাঁড়ি পেরিয়ে আপনি গড়িয়াহাটের ফুটপাথে বহুবার হেঁটেছেন। সেখানে দিয়ে একটু এগিয়ে গেলেই একটি বাড়ির বড় দরজায় আপনার চোখ আটকে যাবেই। কারন সেখানে বড় বড় অক্ষরে লেখা রয়েছে উৎসব – বাড়ির মালিক এভারগ্রীন সুপারস্টার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের নাম নিলেই একটা নাম না বলতেই মনে আসে। একসময়ে বাংলা সিনেমার পর্দায় সুপারহিট জুটি ছিলেন এনারা। ঠিকই ধরেছেন, ঋতুপর্না চক্রবর্তীর কথা বলা হচ্ছে। তাঁর বাড়িতে যেতে হলে একটু ফিরে যেতে হবে অন্য পথে। প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডে অবস্থিত বলরাম মল্লিক রাধারমন মল্লিকের মিষ্টির দোকানটি সবাই চেনেন। সেই দোকানের পাশের গলিটি ধরে একটু এগিয়ে গেলেই রয়েছে ঋতুপর্না চক্রবর্তীর বাড়ি।

বাংলার সুপারস্টার হিসেবে দেব ভীষন জনপ্রিয়। যদিও তাঁর বাড়ি কোথায়, সেটা বোধহয় খুব কম মানুষই জানেন না। তবে সাউথ সিটি সবথেকে বিলাসবহুল এবং ঝাঁ চকচকে ফ্ল্যাটটি দেখলে আপনিও দেবের ফ্যান হয়ে যাবেন। তিনি সপরিবারে ওই ফ্ল্যাটে রয়েছেন বহু বছর ধরে।

দেবের সঙ্গে যে অভিনেত্রীর জুটি বাস্তবেও অনুরাগীদের মন ছুঁয়ে গিয়েছিল, তাঁর বাড়ির অন্দরমহলের নানান ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে। আনন্দপুরের আরবানা কমপ্লেক্সে টলিউডের একঝাঁক তারকা ঝাঁ চকচকে বাড়ি রয়েছে। সেখানে বাস রাজ-শুভশ্রী জুটির। সপরিবারে তাঁরা সেখানে জমিয়ে সংসার করছেন। তবে সেখানে শুধু তাঁরাই রয়েছেন, তা নয়। দেবের প্রথম হিট সিনেমার নায়িকা পায়েল সরকারও ওই একই কমপ্লেক্সের বাসিন্দা। মিষ্টি অভিনেত্রী শ্রাবন্তী, অভিনেতা হিরণ, পরিচালক অরিন্দম শীলও ওই একই আবাসনের বাসিন্দা।

সাউথ সিটি বললেই আমাদের মাথায় আসে শপিংমলের কথা। বেশ কিছু বাঙালী অভিনেতা রয়েছেন, যারা খুব জনপ্রিয় শপিং মলের কাছাকাছি বসবাস করেন। লকডাউনে ওয়েব সিরিজ দেখেননি, এমন খুব কম মানুষই রয়েছেন। বাংলাা ওয়েবসিরিজে অত্যন্ত চেনা মুখ এবং অনবদ্য অভিনেতা সৌরভ দাস ওরফে মন্টু পাইলট কোথায় থাকেন জানেন? অ্যাক্রোপলিস পেরিয়ে গীতাঞ্জলী স্টেডিয়ামকে পাশে রেখে প্রথম গলিতেই একটি বাড়িতে থাকেন তিনি।

এরপর আমরা এগোবো কসবা এলাকায়। এখানে আপনাকে বেশি খুঁজতে হবে না। অলিতে গলিতে পেয়ে যাবেন প্রিয় তারকাদের। প্রথমেই রয়েছেন দূর্গা সহায় খ্যাত সোহিনী সরকার। তিনি পুর্বালোক অঞ্চলের শান্তি নিবাসের থাকেন। ছিমছাম ঘরগুলিতে তিনি তাঁর পুষ্যির সঙ্গেই দিব্যি সংসার করছেন।

এরপর কসবার রথতলায় চলে আসুন। সরসী আবাসনের বি ব্লকে পেয়ে যাবেন অভিনেত্রী তথা সাংসদ মিমি চক্রবর্তীর ফ্ল্যাট। পরিবার এবং প্রিয় দুই পোষ্যকে নিয়ে তাঁর জমাটি সংসার ওই ফ্ল্যাটে। তবে তাঁর দেশের বাড়ি জলপাইগুড়িতে।

টেলিভিশনের সুপারহিট সিরিয়াল ইচ্ছেনদী এবং সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া তানসেনের তানপুরার মূল চরিত্রাভিনেতা বিক্রম চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ি কসবা সুইনহোলনের মল্লিক আবাসনে। বিলাসবহুল এই ফ্ল্যাটটি কিন্তু দেখতে চমৎকার।

টেলিভিশন এবং রূপোলী পর্দায় জমিয়ে অভিনয় করেছেন তিনি। বেশ কিছু হিন্দী সিনেমাতেও নজর কেড়েছেন এই অভিনেতা। ঠিকই ধরেছেন, আজকের শেষ গন্তব্য যীশু সেনগুপ্তের বাড়ি। তিনি বর্তমানে গল্ফগ্রীণের বাসিন্দা। সদ্যই নতুন বাড়ি কিনেছেন তিনি, মনের মতো করে সাজানো বাড়িটির আনাচে কানাচে ছড়িয়ে রয়েছে প্রয়াত বাবার প্রিয় সামগ্রী।

আজকের সফর আপাততঃ এখানেই সমাপ্ত। অন্য আরেক দিন আবার গল্প হবে তারকাদের ঘরেরে ঠিকানা নিয়ে। ফের খুঁজে নেবেন নিজের প্রতিবেশী তারকাকে।