অশ্লীল মেসেজ বাংলাদেশ থেকে সপাটে এল শ্রাবন্তীর ড্রয়িং রুমে, তারপর?

।। স্বর্ণালী তালুকদার ।।

এপাড় বাংলা হোক বা ওপার বাংলা – বাংলা সিনেমার নায়িকাদের জনপ্রিয়তা সবসময় উচ্চ মার্গে বিচরণ করে। তবে তাঁদের জনপ্রিয়তার সুযোগে ব্যক্তিগত পরিসরে কটুবাক্যের বর্ষন বা অশ্লীল বার্তা প্রেরণের মতো অভিযোগ নতুন কোনও ঘটনা নয়। এমনই এক অপমানজনক ঘটনার সম্মুখীন হয়েছেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ দায়ের করেছেন কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ হাই কমিশনের অফিসে।

তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে একটি নম্বর ব্যবহার করে অশ্লীল বার্তা পাঠানো হচ্ছে। দিনের পর দিন ওই ব্যক্তি অশালীন ভাষা প্রয়োগ করে অভিনেত্রীকে যাচ্ছেতাই ভাষায় আক্রমন করে চলেছেন। অভিনেত্রী প্রথমে বাংলাদেশের কিছু পরিচিত মানুষের সঙ্গে নম্বরটি শেয়ার করে ওই ব্যাক্তিকে ম্যাসেজ না পাঠানোর অনুরোধ করতে বলেন।

কিন্তু এতে ওই ব্যাক্তি আরও বেশি করে অশালীন বার্তা পাঠানো শুরু করেছেন। বিষয়টি নিয়ে তাই তিনি বাংলাদেশের হাই কমিশনের দারস্থ হয়েছেন অভিনেত্রী। ওই ব্যক্তির পাঠানো বার্তার কিছু স্ক্রিনশট নিয়ে প্রমান হিসেবে পেশ করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন অভিনেত্রী। একবছর ধরে এই ব্যাক্তি অভিনেত্রীকে বার্তা পাঠিয়ে চলেছেন।

দুই দেশের চলচ্চিত্র কলাকুশলীর কাছেই বিষয়টি নিন্দনীয়। প্রথমে স্থানীয় মানুষদের সাহায্য নিই, যাতে তাদের কথা ওই ব্যক্তি শোনেন। কিন্তু বিষয়টির তীব্রতা ইদানীং বেড়ে গিয়েছে। এরকম চলতে থাকলে বাংলাদেশে গিয়ে ভবিষ্যতে কাজ করা সমস্যা হয়ে উঠবে। ইনস্টাগ্রাম বা ফেসবুকে এমন ম্যাসেজ প্রতিনিয়ত অনেকেই পাঠান। কিন্তু ব্যক্তিগত নম্বরে এইভাবে আক্রমন সহ্য করা যায় না।

কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে তাঁরা তদন্ত করতে শুরু করেছেন। অভিনেত্রীর অভিযোগ গ্রহন করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশকেও জানানো হয়েছে। বিনোদন জগতের কলাকুশলীদের নানারকম সমস্যার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়, তবে ব্যক্তিগত স্তরে আক্রমনের মত ঘটনা সত্যিই হতাশাজনক।