Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

“লেবু কচলিয়ে লাভ নেই”অনুব্রত প্রসঙ্গ উঠতেই সিদ্দিকুল্লা পাশ কাটালেন?

1 min read

।। হিমাদ্রি মণ্ডল,বীরভূম ।।

মিম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়াইসি রবিবার যখন বাংলায় পা রেখেছেন সংখ্যালঘু মহাজোট তৈরি করতে ঠিক তখনই জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দ প্রধান সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী (Siddiqullah Chowdhury) জানিয়ে দিলেন ‘বাংলায় মিম-এর মুরোলি দরকার নেই। ওদের সাথে বিজেপির অন্তর্নিহিত একটা সম্পর্ক আছে।’ পাশাপাশি অনুব্রত প্রসঙ্গ শুনেই বলে উঠলেন, ‘লেবু আর কচলিয়ে লাভ নেই’। রবিবার বীরভূমের সিউড়ি শহরের ঈদগাহ ময়দানে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে সভা করতে আসেন রাজ্যের গ্রন্থাগার মন্ত্রী তথা উলেমায়ে হিন্দ প্রধান সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী (Siddiqullah Chowdhury)।

আর সেখানেই বক্তব্য রাখার সময় তিনি বিজেপি এবং মিম-এর বিরুদ্ধে সরব হন। পাশাপাশি তিনি এদিন এটাও জানিয়ে দেন, ‘আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল সরকার গড়বে এবং নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুনরায় মুখ্যমন্ত্রী হবেন।’ এর আগে বিভিন্ন সভায় সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরীকে বারংবার বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গেলেও উল্লেখযোগ্য ভাবে মঞ্চে বক্তব্য রাখার সময় এদিন তিনি অনুব্রত প্রসঙ্গে একটি কথাও খরচ করেন নি। শুধু সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়ার সময় তাকে অনুব্রত মন্ডল সম্বন্ধে কথা বলতে দেখা যায়।

আরো পড়ুন : ভাইপো রাজ খতম হবে, খতম হবে, তিনবার বললেন শুভেন্দু

তিনি বলেন, ‘লেবু আর কচলিয়ে লাভ নেই। সেটা দলের ব্যাপার। আমি আমার জায়গায় আছি। আর একজন তার জায়গায় আছেন। বড় সংসারে অনেক রকম অনেক কিছু থাকে। আমার ওজন কম, তার ওজন বেশি। এই কারণে এক জায়গায় বসলে একটু দুলবে। ওই জন্য উনি উনার মত করুন, আমি আমার মত করবো। আমাদের লক্ষ্য হলো বিজেপিকে তাড়ানো।’ মিমকে এদিন সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরি অশুভ শক্তি বলে কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন, “হায়দ্রাবাদের নেতৃত্তের কোনো প্রয়োজন নেই বাংলায়। আমরা বাংলার জন্য যথেষ্ট। বাংলা একটা যৌথ পরিবার, হিন্দু মুসলমান মিলে মিশে থাকবে। ওদের তেতো মুখ হিন্দু-মুসলমানের বিভাজন তৈরি করে দেবে। ওরা বাংলার জন্য আগুন নিয়ে খেলতে এসেছেন। বাংলায় কোন অবদান মিম-এর নেই।”