ত্রাণ বন্টনে আর এস এস,রাজনৈতিক লাভ বিজেপির

।। রাজীব ঘোষ ।।

ভারতে এ যাবৎ সবথেকে খারাপ কিছু হয়ে থাকলে সেটা করোনা সংক্রমণ।আমাদের লক্ষ্য হওয়া উচিত দুর্গতদের সাহায্য করা।এক সংবাদ মাধ্যমে এই কথা বলেন আর এস এসের সাধারণ সম্পাদক যিষ্ণু বসু।লকডাউনের নিষেধাজ্ঞার জন্য সংগঠনের সদস্যরা নিয়মিত বৈঠক করতে না পারলেও ত্রাণের কাজে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন।গত তিন মাসে করোনা সংক্রমণের জেরে লকডাউনের শিকার পরিযায়ী শ্রমিক এবং আমপান ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষতিগ্রস্তদের খাদ্য এবং ওষুধ দিয়ে সাহায্য করেছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ(আর এস এস)।

পরিযায়ী শ্রমিকদের কর্মসংস্থানের জন্য হেল্প ডেস্ক চালু করেছে আর এস এসের ট্রেড ইউনিয়ন শাখা ভারতীয় মজদুর সঙ্ঘ(বি এম এস)।পরিযায়ী শ্রমিকদের তথ্য জোগাড় করে তাদের জন্য কাজের ব‍্যবস্থা করা হচ্ছে।রাজ‍্যজুড়ে ৩৮ টি হেল্প ডেস্ক চালু করেছে সংগঠন।আর এস এসের চিকিৎসকদের সংগঠন ন‍্যাশনাল মেডিকোস অর্গানাইজেশনের পক্ষ থেকে পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার আমপান ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য ৮০ টি মেডিকেল ক‍্যাম্পের ব‍্যবস্থা করা হয়েছে।

সেখানে এখনো পর্যন্ত ২৫০০০ মানুষের চিকিৎসা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংগঠনের রাজ‍্য সভাপতি চিকিৎসক প্রভাত সিং।আর এস এস সমর্থিত দেশব্যাপী সমবায় উদ‍্যোগ সহকার ভারতীর অধীনে কৃষি ও মৎস্য চাষ সংক্রান্ত সমবায়ের মাধ্যমে একাধিক সমবায় গড়ে তোলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ,সিকিম, ওড়িশা সহ অন্যান্য জায়গার দায়িত্বে থাকা সংগঠনের সম্পাদক বিবেকানন্দ পাত্র।

বর্তমান পরিস্থিতিতে আর এস এসের এই উদ‍্যোগ ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ‍্যে বিজেপিকে সাফল্য এনে দিতে পারে।যে সময় তৃণমূল কংগ্রেসের জনপ্রতিনিধি নেতানেত্রীদের বিরুদ্ধে ত্রাণ বন্টনে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে।সেই কারণে রাজ‍্যজুড়ে মানুষ বিক্ষোভ করেছেন।বিডিও অফিস থেকে শুরু করে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে সেই বিক্ষোভ আছড়ে পড়েছে।

মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ত্রাণ দুর্নীতিতে কড়া পদক্ষেপের কথা ঘোষণা করেছেন।তৃণমূল কংগ্রেসের নেতানেত্রীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া শুরু হয়েছে।এই পরিস্থিতিতে রাজ‍্যের গ্রামাঞ্চলে আর এস এস ত্রাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।তাদের এই কাজ বিধানসভা নির্বাচনে রাজ‍্যে বিজেপিকে যথেষ্ট সাফল্য এনে দিতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।