Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ভোট বন্ধ করার আর্জি! পিপিই পরে রাস্তায় শুয়ে আবেদন !কমিশন কি ভাবছে?

1 min read

।। সুদীপা সরকার ।।

ভোটের আবহে ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী করোনার গ্রাফ। যা চিন্তা বাড়াচ্ছে সকলের ‌। সংক্রমনের গতি কিভাবে কমানো যায় সেই চিন্তায় রয়েছেন চিকিৎসকদের একাংশ। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি জনসমাবেশ করছে, রোড শোতে হাজার হাজার মানুষ পা মেলাচ্ছে।আবার বাড়ি বাড়ি প্রচার চালাচ্ছেন প্রার্থীরা। অনেকেরই মুখে মাস্ক থাকছে না।নানান জায়গায় থেকে করোনা বিধি ভঙ্গের ছবিটাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে উঠে আসছে।

এছাড়াও সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনে রাজনৈতিক কর্মসূচি গুলি যে করা হচ্ছে না তা আমাদের চোখের সামনে প্রতিদিন ভেসে আসছে। যে ভাবে এই রাজ্যে সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে খুবই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি তৈরি হতে চলেছে তা আর নতুন করে বলার অপেক্ষা রাখে না। এমন সময় ভোট বন্ধ রাখার আবেদন জানিয়ে প্রতিবাদে সামিল হলেন আট থেকে দশজন সাধারণ মানুষ। তাঁরা নির্বাচন কমিশনের অফিসের সামনে পিপিই কিট পরে রাস্তার মধ্যে শুয়ে মুখে মাস্ক লাগিয়ে হাতে পোস্টার নিয়ে রোদকে উপেক্ষা করেই প্রতিবাদে সামিল হন।

আরো পড়ুন : বাংলায় বিজেপির সন্ত্রাস হাওয়াই চটিতে শায়েস্তা হবে, মত দেবাংশুর

তাঁদের দাবি যেভাবে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে এবং মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়ছে তাতে অবিলম্বে ভোট বন্ধ করা হোক। রাজনৈতিক দলগুলির মিটিং-মিছিল বন্ধ করার দাবি জানান তাঁরা।কমিশন যাতে বিষয়টির উপর গুরুত্ব দেয় তাই কমিশনের অফিসের সামনেই তাঁরা এই প্রতিবাদ করেন। অনেক রাজ্যেই সংক্রমণ বাড়ায় নতুন করে লকডাউন ,নাইট কার্ফু চালু হয়ে গিয়েছে। বাংলায় ভোটের প্রচারে বেরিয়ে প্রার্থীরাও আক্রান্ত হচ্ছেন।

বাংলায় ভোট শেষ হবে এপ্রিল মাসে। মে জুন মাস নাগাদ আগের বছরের মতো পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার সম্ভাবনা দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। যা নতুন করে সকলের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলছে। মানুষের বেঁচে থাকা, ভালো থাকা, সুস্থ থাকার জন্যই গণতান্ত্রিক অধিকার ভোট প্রয়োগ করা হয়।কিন্তু যেভাবে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে সে ক্ষেত্রে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা যেমন বাড়ছে তার সাথে সাথে প্রাণনাশেরও আতঙ্ক তৈরি হচ্ছে সকলের মনে।