Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নন্দন হাউসফুল! আবেগভুত প্রসেনজিৎ ধন্যবাদ জানালেন মুখ্যমন্ত্রীকে

1 min read

||শুভ্রদীপ চক্রবর্তী||

সম্প্রতি কলকাতার নন্দনে শুরু হয়েছে ২৬ তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব। হাজারো বাঁধা বিপত্তি কাটিয়ে আয়োজিত হয়েছে ফেস্টিভ্যাল এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। উপস্থিত হয়েছিলেন টালিগঞ্জের বহু অভিনেতা অভিনেত্রী সহ রাজ্যের ভিন্ন উজ্জ্বল ব্যক্তিত্বেরা।

একটা সময় ছিল যখন ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের চেয়ারম্যান ছিলেন বুম্বাদা। আজ যুগ বদলেছে অভিনয় বদলেছে দায়িত্ব পৌঁছেছে নতুন দের হাতে! তবে সেই দায়িত্ব বেশ যত্নের সঙ্গেই পালন করছে নতুন প্রজন্মের কলাকুশলীরা। তাই সেই বিষয়ে এক পলকও বিচলিত না হয়ে তিনি সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন। ২৬ তমকলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সেন্টিনারি ট্রিবিউট বিভাগে যে সব নাম রয়েছে- ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়, এরিক রোমার, হেমন্ত মুখোপাধ্যায়, পণ্ডিত রবিশঙ্কর, ফেদেরিকো ফেলিনি তাঁদের স্মরণে গগনেন্দ্র শিল্প প্রদর্শশালায় এগজিবিশনেরও উদ্বোধন করলেন তিনি।

শনিবার নন্দনের ভিআইপি রুমে দাঁড়িয়ে তিনি কিছুটা আবেগভুত হয়ে বললেন, “কোরোনার পর পৃথিবীটা কতটা পাল্টে গিয়েছে। এক সময় আমার সিনিয়ররা চেয়ারম্যান ছিলেন। ঋতু (ঋতুপর্ণ ঘোষ) আমার সমসাময়িক ছিল। আমি যখন চেয়ারম্যান ছিলাম বেশ উপভোগ করেছি। তার পর নতুন প্রজন্মের হাতে দায়িত্ব গিয়েছে। চিরকালই এই ফেস্টিভ্যালের সঙ্গে আমার আত্মিক যোগ।”

এই ২৬তম চলচ্চিত্র উৎসব বেশ সারা ফেলেছে বাংলার সিনেমা প্রেমীদের মধ্যে। শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি জানিয়ে দিয়েছিলেন, ১০০ শতাংশ আসনেই বসতে পারবে দর্শকেরা। আর তাতেই বাজিমাত। প্রথম দিনই নন্দন ১ দুপুরের শো গেল হাউসফুল। সেই ভিড় সেই লাইন। আবারও পুরোনো মেজাজে নন্দন চত্বর তথা শিশির মঞ্চ। সপ্তাহান্তে মানুষের ভিড় আবারও ফুটিয়ে তুললো সিনেমা আর নন্দনের সেই পুরোনো প্রেম। এদিন ফেলিনির ‘এইট অ্যান্ড হাফ’ ছবি দিয়ে শুরু হয়েছিল দুপুরের শো। সমস্ত বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে মানুষের এই ঢল ছিল দেখার মতো। বর্তমানে রাজ্যে হুহু করে বাড়ছে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা এই অবস্থায় কতটা প্রাসঙ্গিক মুখ্যমন্ত্রীর এই সিদ্ধান্ত তা ঠিক করবে সিনেমার আগামী দিনগুলি। তবে বর্তমান ফেস্টিভ্যালের চেয়ারম্যান রাজ চক্রবর্তীর উদ্যোগ যে বেশ সাড়া ফেলেছে তা বলাই বাহুল্য।