Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আমিষ রান্নার মূল উপাদান পেঁয়াজ, নানান গুনাগুনের পাশাপাশি রয়েছে ক্ষতিকর দিকও, জানুন

1 min read

।। শুভ্রদীপ চক্রবর্তী ।।

রোজকার স্যালাডে হোক কিংবা রান্নায়, নাকের জল চোখের জল এক করে দেওয়া এই পেঁয়াজ ছাড়া আমিষ রান্না অসম্পূর্ণ। পেঁয়াজে রয়েছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি, ভিটামিন বি, বি নাইন, ফাইবারের মতো খাদ্যগুন যা শরীরের ইমিউনিটি বাড়ায়, নানান রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। তাই পেঁয়াজ খাওয়া শরীর, ত্বক ও চুলের জন্য খুবই উপকারী। তবে সবকিছুই পরিমান মতো না খেলেই বিপদ। পেঁয়াজ খাওয়ার উপকারীতা অনেকেই জানেন। কিন্তু অতিরিক্ত খেলে হতে পারে নানান সমস্যা। যেমন-

১. পেঁয়াজে রয়েছে নানান স্বাস্থ্যকর উপকারীতা। তবে যাদের শরীরে নানান রকম অ্যালার্জির সমস্যা রয়েছে তাঁদের জন্য পেঁয়াজ হতে পারে বিপদজ্জনক। পেঁয়াজ থেকেও অনেকের অ্যালার্জির সমস্যা হতে পারে। সেক্ষেত্রে পেঁয়াজ খেলে ত্বক ও চোখের লাল ভাব, চুলকানি, শ্বাস নিতে অসুবিধা, মুখের ফোলাভাব-সহ নানান অ্যালার্জির লক্ষণ দেখা দিতে পারে।

২. পেঁয়াজের ফ্রুকটোজের মতো উপাদান থাকে। যা থেকে অনেকের সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়াও অত্যাধিক পেঁয়াজ খাওয়ার ফলে ডায়রিয়া, বমির মতো সমস্যাও হতে পারে।

৩. পেঁয়াজ উচ্চ রক্তচাপ কমায়। কিন্তু অতিরিক্ত পেঁয়াজ খাওয়া ফলে রক্তচাপ অতিরিক্ত মাত্রায় কমে যেতে পারে। যা শরীরের পক্ষে বিপদজ্জনক। শরীরের রক্তচাপ একেবারে কমে গেলে হতে পারে মাথা ঘোরা, বমি বমি ভাব, গা গুলানো এর মতো সমস্যা।

৪. গর্ভবতী অবস্থায় মহিলাদের পেঁয়াজ খাওয়া হৃদরোগের সমস্যা বা ঝুঁকি বাড়িতে তুলতে পারে।

৫. যারা ব্লাড ক্লড না হওয়ার ওষুধ খান অর্থাৎ রক্ত তরল রাখার ওষুধ খান তাঁদের জন্য পেঁয়াজ ক্ষতিকর। কারণ পেঁয়াজে থাকা উপাদান রক্ত জমাট বাধঁতে দেয়না। সেক্ষত্রে ওষুধের সাথে এই উপাদান মিশে রক্ত বেশি তরল হয়েও সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই পরিমান মতো খাওয়াই শ্রেয়।

৬. ডায়বেটিস রুগীদের জন্য ও অতিরিক্ত পেঁয়াজ খাওয়া বিপদজ্জনক হয়ে দাঁড়াতে পারে। কারণ পেঁয়াজের থাকা উপাদান রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখলেও পরিমানের বেশি পেঁয়াজ খেলে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বিপদজ্জনক হাড়ে কমতে পারে।

তাই পেঁয়াজ খান তবে টা পরিমান মতো। অতিরিক্ত কোনো খাবার খাওয়াই শরীরের পক্ষে অস্বাস্থ্যকর হয়ে দাঁড়ায়। পুষ্টিবিশেষজ্ঞরা তাই সারাদিনে একটা মাঝারি পেঁয়াজ খাওয়ার পরামর্শ দেন।