আবারও টলিপাড়ায় করোনার থাবা, আক্রান্ত বহু কলাকুশলীরা

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

নিউ নর্ম্যালের হাত ধরে স্বাভাবিক ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে টলিপাড়া। গত ১১ জুন থেকে শুটিং শুরু হয়েছে টেলি সিরিয়ালের। আর এরপর শুরু হয়েছে রিয়েলিটি শো এবং সিনেমার শুটিংও। কিন্তু তার মধ্যেই বিপত্তি।

কিছুদিন আগেই করোনা আক্রান্ত হন অভিনেতা সুরজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এবার জানা যাচ্ছে, অদৃশ্য ভাইরাসে আক্রান্ত ‘কৃষ্ণকলি’র অশোক অর্থাৎ ভিভান ঘোষ, ‘কনে বউ’-এর মাহি অর্থাৎ নেহা আমনদীপ, ‘সিংহলগ্না’র মেক আপ আর্টিস্ট দীপঙ্কর রায়।

এছাড়াও বিভিন্ন ধারাবাহিকে কর্মরত আরও প্রায় ১১ জন কলাকুশলীর শরীরে করোনা থাবা বসিয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে। জানা গিয়েছে, যতটা সম্ভব কোভিড বিধি মেনেই ‘কৃষ্ণকলি’র শুটিং করছিলেন ভিভান ঘোষ। এরপর, ২১শে জুলাই জ্বর আসলে করোনা পরীক্ষা করান তিনি। তাতেই জানা যায় ভিভান করোনা আক্রান্ত। আপাতত শুটিং বন্ধ রেখেছেন তিনি। রিপোর্ট নেগেটিভ হলে তবেই কাজ শুরু করবেন ভিভান বলে জানা গিয়েছে।

প্রায় একই অবস্থা ‘সিংহলগ্না’র মেক আপ আর্টিস্ট দীপঙ্করেরও। জানা গিয়েছে, গত ১৬ই জুলাই জ্বর আসে তার। ওষুধ খেয়ে ২০শে জুলাই ফের স্টুডিওয় আসেন তিনি। কিন্তু গন্ধ এবং খাবারের স্বাদ চলে যাওয়ায় চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন দীপঙ্কর। চিকিৎসকের পরামর্শে কোভিড পরীক্ষা করানোর পরই জানা যায় তিনি করোনা আক্রান্ত। আপাতত হোম আইসোলেশনে রয়েছেন দীপঙ্কর।

অন্যদিকে, গত বুধবার করোনা আক্রান্ত হন ‘কনে বউ’-এর মাহি অর্থাৎ নেহা। জানা গিয়েছে, কোনও উপসর্গ না থাকায় গত রবিবার পর্যন্ত শুটিং করেছেন তিনি। নেহার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়ার পরই সোনালি চৌধুরি আপাতত শুটিং না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পরীক্ষা করিয়ে নিশ্চিত হওয়ার পর আবার শুটিংয়ে ফিরবেন বলেই জানান তিনি।

এভাবে একের পর এক শিল্পীর করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবরে টলিপাড়ার অন্দরে বাড়ছে আতঙ্ক। প্রশ্ন উঠছে কোভিড বিধি মানার ক্ষেত্রে কী কোথায় কোনও ফাঁক থেকে যাচ্ছে।