ফুটো নৌকায় কেউ উঠবে না, তৃণমূলে যোগদান প্রসঙ্গে বলেন দেবশ্রী

।। রাজীব ঘোষ ।।

সমস্ত ম্যাজিক কাজ করে যখন মানুষের ধৈর্যের সীমা ঠিক থাকে। করোনা পরিস্থিতি রেশন এবং আমপান ত্রাণ দুর্নীতি মানুষ দেখেছে। একজন মহিলা নিজের ইচ্ছা মতন সব কিছু করেন। এতদিন পর্যন্ত রাজ্য সরকারের অনেক কিছুই মানুষ মেনে নিচ্ছিল। কিন্তু মানুষ বিপদের সময় বুঝেছে হাসপাতালে চিকিৎসা নেই রেশনের দুর্নীতি আম পানের দুর্নীতি দেখেছে। মমতার লোকেরা টাকা চুরি করতে থাকবে আর বিরোধী রাজনৈতিক দল সেটা দেখবে।

প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ ত্রাণ পায়নি অথচ তৃণমূলের প্রধান তার নিজের লোকের নামে ক্ষতিপূরণ পাইয়ে দিয়েছে। প্রথম কলকাতায় সাক্ষাৎকারে বললেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। তার কথায় যাদের পাকা বাড়ি রয়েছে তারা আম পানের ত্রাণ পেয়েছে। রাজনীতি করবেন না রাজনীতি শুধু করবেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি করোনা রেশন এনআরসি নিয়ে রাজনীতি করবেন। দেশের মধ্যে শুধু ওনার রাজনীতি করার অধিকার আছে আর কারো নেই।

মানুষ দেখেছে করোনা কালে তাদের অধিকার পাওয়ার জন্য দাবি করছে। পুলিশ প্রশাসন দিয়ে তখন তাদের উপর যে নৃশংস অত্যাচার করা হয়েছে। সামনে যে কোনো নির্বাচনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে মানুষ ভোট দেবে। যে সিঙ্গুর থেকে মমতার উত্থান হয়েছিল সেই সিঙ্গুরের সমবায় সমিতিতে তৃণমূল হেরে গিয়েছে। তৃণমূল থেকে কোনো মন্ত্রীর বিজেপিতে যোগদান প্রসঙ্গে দেবশ্রী চৌধুরী বলেন ফুটো নৌকাতে কে কবে চড়তে গিয়েছে। ভারতীয় জনতা পার্টি গোটা বিশ্বের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক দল।

রাজনীতি যাকে করতে হবে তাকে বিজেপিতে আসতে হবে। দলের নীতি আদর্শ রয়েছে। দেশকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে বিজেপি কাজ করছে। বিজেপি থেকে কেউ অন্য দলে যাবে না। বিজেপির অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব প্রসঙ্গে বলেন বাইশে শ্রাবণ দলের কর্মসূচিতে দিলীপ ঘোষ মুকুল রায় রাহুল সিনহা একসঙ্গে ছিলেন। কেউ ডুবন্ত সূর্যের হাত ধরতে যায় না। তৃণমূলের ফুটো নৌকায় কেউ উঠবে না। এরপরে তিনি দলের সদস্য সংগ্রহ অভিযানের কথা জানান। সকলের সুস্থতা কামনা করেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী।