স্বেচ্ছা মৃত্যু বৈধ করতে ভোট দিল নিউজিল্যান্ড

1 min read

।। সুদীপ মান্না ।।

নিউজিল্যান্ড স্বেচ্ছা মৃত্যু বৈধ করতে ভোট দিল। কিন্তু গাঁজার বিনোদনমূলক ব্যবহার প্রত্যাখান করল। এই দুইটি বিষয়ে গণভোট এই মাসের সাধারণ নির্বাচনের অংশ ছিল। নিউজিল্যান্ডের নির্বাচন কমিশন জানালো শুক্রবার।

নিউজিল্যান্ডবাসীদের জানতে চাওয়া হয়েছিল, তারা এন্ড অফ লাইফ চয়েস বিল অনুমোদন করে কি না। যাতে টার্মিনাল অসুস্থতায় আক্রান্ত ব্যক্তিকে বেশ কিছু শর্ত ও সুরক্ষা বিধি মেনে স্বেচ্ছা মৃত্যুতে সহায়তা করা যায়।

গণভোটের প্রাথমিক ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, ৬৫.২ শতাংশ ভোটার স্বেচ্ছা মৃত্যু অনুমোদনে আইন করার স্বপক্ষে রায় দিয়েছেন।

এখনও প্রায় আধ মিলিয়ন ভোট গোণা বাকি আছে। ৬ই নভেম্বর চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হবে।

এই “হ্যাঁ” ভোটের অর্থ নেদারল্যান্ড ও কানাডার মতো দেশের তালিকায় নাম তুললো নিউজিল্যান্ড, যারা স্বেচ্ছা মৃত্যুকে আইনসঙ্গত করেছে। সরকারকে এখন নিশ্চিত করতে হবে, আইনটি অনেকগুলি সুরক্ষা শর্ত-সহ শুধুমাত্র গুরুতর অসুস্থদের ওপর প্রযোজ্য হবে। এই আইন কার্যকর হবে অক্টোবর ২০২১ থেকে।

স্বেচ্ছা মৃত্যুর জন্য ২ জন ডাক্তারের অনুমোদন লাগবে।

আরও পড়ুন: কাশ্মীরে জঙ্গি হানায় নিহত ৩ বিজেপি কর্মী

প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডেন ব্যাপক ভোটে পুনর্ণিবাচিত হয়েছেন। তিনি এই বিলটিকে সমর্থন জানিয়েছেন, একই সঙ্গে বিনেদনমূলক গাঁজার ব্যবহার বৈধ করতে গণভোটেও তিনি সমর্থন জানিয়েছেন।

নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, ৫৩.১ শতাংশ ভোটার এই পরিকল্পনার বিরোধিতা করেছে। না হলে নিউজিল্যান্ড হতো তৃতীয় দেশ কানাডা ও উরুগুয়ের পরে যারা প্রাপ্তবয়স্কদের জন্য এই মাদকের ব্যবহার বৈধ করেছে।

Categories