রিয়ার জামিনের বিরোধিতা এনসিবির

।।শুভশ্রী মুহুরী ।। কলকাতা।।

রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে সুশান্তকে হত্যার অভিযোগ আনেন সুশান্তের বাবা। তদন্তভার যায় সিবিআই এর হাতে। এরপরেই বলিউডে মাদক যোগ উঠে আসে। রিয়া চক্রবর্তীর কাছ থেকে উদ্ধার হয় ৫৬ কেজি গাঁজা। শেষ পর্যন্ত নারকোটিক্স ব্যুরো রিয়া এবং তাঁর ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে জেল হেফাজতে নেন। রিয়ার তরফে তাঁর আইনজীবি জামিনের আবেদন করেন।

আজ আদালত জামিনের শুনানি দেওয়ার আগেই জামিন খারিজের পক্ষে আবেদন করেন এনসিবি। আর তাতেই রিয়াকে ড্রাগ সিন্ডিকেটের সদস্য বলে দাবি করেন নারকোটিক্স ব্যুরো।আজএনসিবি রিয়ার জামিনের বিরুদ্ধে মহামান্য আদালতকে আবেদন পত্র দেন। সেই আবেদন পত্রে রিয়ার ড্রাগ চক্রে যোগ থাকার স্বপক্ষে একাধিক যুক্তি দেওয়া হয়।

বলা হয়, বলিউডে তারকা মহলে ড্রাগ পাচারে রিয়া ছিলেন যোগসূত্র। রিয়া ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড এবং নগদের মাধ্যমে নিয়মিত ড্রাগ ক্রয় করতেন। প্রমাণ হিসেবে রিয়ার সাথে ড্রাগ পাচারকারী সদস্যদের হোয়াটস অ্যাপ চ্যাটের প্রমাণ দেখানো হয়।এনসিবি আবেদনে আরও লেখেন, সুশান্ত যে ড্রাগের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়েছিলেন সেই কথা রিয়া জানতেন। সুশান্তকে ড্রাগ নিতে বাঁধা না দিয়ে রিয়া তাঁকে ড্রাগ এনে দিতেন।

এমনকি নিজেও সুশান্তকে ড্রাগ গ্রহনে সঙ্গ দিতেন। এর সপক্ষেও আদালতকে প্রমাণ দেখান এনসিবি।এই মুহুর্তে সুশান্তের মৃত্যু রহস্যের মোড় ঘুরে গিয়েছে মাদকচক্রে। দীপিকা পাডুকোন, শ্রদ্ধা কাপুর, রকুল প্রীত এবং সারা আলি খানকে মাদকযোগে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত মাদক চক্রের সাথে যুক্ত ১৮ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আজ রিয়া এবং সৌভিক চক্রবর্তীর জামিন নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে আদালতের তরফে। অভিযুক্ত না এনসিবি আজকের মামলায় কে জেতেন সেই দিকেই তাকিয়ে রয়েছেন সকলে।