Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

এক সাথে তিনটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মুখ খুললেন মুকুল

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

হেস্টিংসের অফিসে ঢোকার সময়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায় (Mukul Ray)। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলি (Sourav Ganguly)কে দেখতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর আসা বা প্রধানমন্ত্রীর ফোন থেকে শুরু করে শোভন-বৈশাখীর রোড শো সব বিষয়ে কথা বললেন মুকুল রায়। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)-র পুত্র তথা বিসিসিআই-এর সেক্রেটারি জয় শাহ (Jay Shah) ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরের (Anurag Thakur)
বিসিসিআই-এর (Board of Control for Cricket in India) প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলিকে দেখতে আসায় বা প্রধান মন্ত্রীর ফোন করার বিষয়ে বিরোধীরা রাজনীতি খুঁজছে এই প্রশ্নের উত্তরে মুকুল রায় বলেন, ‘সৌরভ গাঙ্গুলি (Sourav Ganguly) বাংলা তথা ভারতের বড় ক্রিকেটার এ সম্পর্কে তো কোন সন্দেহ নেই।

তাকে দেখতে আসার বিষয় কোন অসামঞ্জস্য দেখছেন না’ বলে জানান মুকুল রায় (Mukul Ray)। পাশাপাশি তার প্রশ্ন ‘সৌরভ একজন বড় ক্রিকেটার সেটা মানতে কী অসুবিধে আছে কারও ? তাকে ফোন করে প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্যের খবর নিলে অন্যায়ের কিছু দেখিনা’ বলেও জানান তিনি। এছাডা, সৌরভ গাঙ্গুলির উপর মানসিক চাপের বিষয় মুকুল রায়ের মন্তব্য ‘মানসিক চাপের কী আছে, পাশাপাশি তার প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রী যদি সৌরভ গাঙ্গুলিকে ফোন করেন তাহলে অন্যায় কোথায় ? এছাড়া, ফুরফুরা শরিফে আব্বাস সিদ্দিকির (Abbas Siddiqui) কাছে মিম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি (Asaduddin Owaisi) আসার বিষয় মুকুল রায়ের মন্তব্য ‘Federal Structure-এ কে কোথায় যাবে আসবে সেতো তাদের ব্যাপার। এখানে আমার কোন কথা বলা সাজেনা।’ পাশাপাশি মিমকে বলা হচ্ছে বিজেপির ‘বি’ টিম এই প্রসঙ্গে মুকুল রায়ের প্রশ্ন, ‘তাহলে সিপিএম কী কংগ্রেসের ‘বি’ টিম ?’

আরো পড়ুন : কোন মন্ত্রবলে তৃণমূলের প্রথম সারির মুখ হলেন সুজাতা মন্ডল খাঁ?


তার মন্তব্য, ‘এসব বলার জন্য অনেক কিছু বলা যায় কিন্তু কোনটাই কথার কথা নয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি জানি না সংখ্যালঘু ভোট বা সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোট, ভোট হবে ভোটে মানুষ ভোট দেবে ভোটের ফলাফল হবে’। অন্যদিকে, শোভন চট্টোপাধ্যায় (Shovon Chatterjee) ও বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Baishakhi Bandopadhyay) রোড শোতে পুলিশের অনুমতি না দেওয়ার বিষয় মুকুল রায়ের স্পষ্ট জবাব, ‘পশ্চিম বাংলায় কোন কিছু করতে গেলেই পুলিশ অনুমতি দেয় না। এটা একমাত্র বাংলার মুখ্যমন্ত্রী জানেন কাকে অনুমতি দেওয়া হবে। সুতরাং এই বিষয়টি নিশ্চয়ই অন্যায়, অনুমতি চাইলে অনুমতি না দেওয়াটা অন্যায়’ বলে মন্তব্য মুকুল রায়ের। পাশাপাশি শোভন-বৈশাখীর রোড শোতে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের না থাকার বিষয়ে তার মন্তব্য, ‘যে কেউ আসতে পারে যেতে পারে বসতে পারে কথা বলতে পারে দল তাকে দায়িত্ব দিতে পারে এর সঙ্গে আমি কিন্তু অন্য কোন গল্প দেখছি না।’