Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মা তারাই ব্যাপারটা বুঝে নেবেন! ভোটের মানতটা সেরে ফেলছেন অনুব্রত

1 min read

।। শর্মিলা মিত্র ।।

বিধানসভা নির্বাচন পাখীর চোখ হওয়ার পাশাপাশি এবার কোন দল একক সংখ্যা গরিষ্ঠতা পাবে, সেটাও যেমন প্রশ্ন তেমনই কটা বেশি আসনে জয়লাভ করা যাবে সেটাও এখন প্রেস্টিজ ইস্যু হয়ে যেতে চলেছে শাসক-বিরোধী সব শিবিরেরই। ইতিমধ্যেই রাজ্যে দলের কাছে ২০০ আসনের টার্গেট বেঁধে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ(Amit Shah)। পাশাপাশি রাজ্য বিজেপির তরফ থেকেও হলা হচ্ছে ২০০-র বেশিই আসন পেতে চলেছেন তারা। অন্যদিকে, বিজেপি রাজ্যে দুই সংখ্যার বেশি আসন পেতে পারবেনা বলে চ্যালেন্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন ভোট কূশলী প্রশান্ত কিশোর। তেমনই ২০০ কাছাকাছি আসন পেতে আত্মবিশ্বাসী শাসক দলও।

আর এবার, ২১-এর ‘কঠিন’ ভোটে উতরোতে যজ্ঞে সামিল বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)। সম্প্রতি কখনও তারাপীঠে। কখনও নিজের দলের কার্যালয়ের পুজোয়। বরাবরই মা কালীর কাছে তার একটাই আর্জি, আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে দলকে ২০০-র গণ্ডি পার করে দিন দেবী। আর এবার শুধুমাত্র প্রার্থনা নয় মহাযজ্ঞ অনুব্রত মণ্ডলের। সে যজ্ঞের নাম রাখা হয়েছে ‘মহাবিজয় যজ্ঞ’। দলীয় সূত্রে খবর, আজ, বুধবার বোলপুরের কঙ্কালীতলায় কঙ্কালী মায়ের সামনেই এই যজ্ঞে বসবেন অনুব্রত মন্ডল (Anubrata Mondal)। এই বিষয়ে হেঁয়ালির ছলেই অনুব্রত মন্ডলের উত্তর, ‘আগেকার দিনে রাজা মহারাজারা যুদ্ধে যাওয়ার আগে মহাযজ্ঞ করতেন।

আরো পড়ুন : দুদিনের সফরে রাজ্যে ডেপুটি ইলেকশন কমিশনার, নজরে আইনশৃঙ্খলা

ভেবে নিন, এটাও সেই একই রকম যজ্ঞ।’ অন্যদিকে, এই যজ্ঞের বিষয় অনুব্রত মন্ডলের ঘনিষ্ঠ জেলা তৃণমূলের এক নেতা জানান, ‘বিধানসভা ভোটে দল যাতে আবার একক সংখ্যাগরিষ্ঠতায় ক্ষমতায় আসে, তার জন্যই এই মহাযজ্ঞের আয়োজন করেছেন কেষ্টদা।’ পাশাপাশি কঙ্কালীতলা মন্দিরের সেবায়েতরা জানান, ‘এর আগেও অনুব্রতবাবু এখানে যজ্ঞ করেছেন। দলের মঙ্গল কামনার্থে বুধবার বড় যজ্ঞ করবেন তিনি।’ বলেও জানান মন্দিরের সেবায়েতরা। জানা গিয়েছে, ‘মহাবিজয় যজ্ঞের’ জন্য করা হয়েছে এলাহি আয়োজন।

জানা গিয়েছে এই মহা যজ্ঞে ১ কুইন্টাল ১১ কেজি বেল কাঠ, তিন টিন ঘি এবং ১০০১টি বেলপাতা পোড়ানো হবে। এই যজ্ঞ করার জন্য ১২ জন পুরোহিতকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলেও তৃণমূল সূত্রে খবর। জানা গিয়েছে, নিজে উপস্থিত হয়ে এই যজ্ঞ করবেন বীরভূম জেলা তৃণমূলের সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)।যজ্ঞ শেষ হওয়ায় পর আড়াই থেকে তিন হাজার মানুষের নরনারায়ণ সেবারও ব্যবস্থা করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, বুধবারের যজ্ঞের আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যজ্ঞস্থল ঘুরেও দেখেন অনুব্রত মণ্ডলসহ তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। অন্যদিকে, এই যজ্ঞের আয়োজনকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি গেরুয়া শিবির।