দাঁ বাড়ির মা দুর্গার ৫ সন্তান

।। প্রথম কলকাতা ।।

প্রত্যেক বনেদি বাড়ির পুজোর সঙ্গে জুড়ে রয়েছে, কোনও না কোন গল্প। উত্তর কলকাতা জোড়াসাঁকো অঞ্চলের দাঁ বাড়ির দূর্গা পুজোর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে এমনি গল্প।দেড়শ বছরের বেশি পুরনো এই দুর্গাপুজো। এ বছর শুরু হয় ১৮৪০ সালে। কথিত আছে মা দুর্গা এই বাড়িতে গয়না পরতে আসেন।


একসময় প্যারিস এবং জার্মান থেকে সোনালী রংয়ের ধাতুর সরঞ্জাম এনে গহনা করাতেন মা দুর্গার জন্য। একচালার চালচিত্রে পুজো হয়। এই পুজো কলকাতার অন্যতম ঐতিহ্য।এই দুর্গাপূজা শুরু করেন নরসিংহ চন্দ্র দাঁ। প্রচলিত কাহিনী অনুযায়ী দেবী দুর্গা স্বয়ং নাকি এই বাড়িতে আসেন। বাড়ির প্রতিমাকে কন্যারূপে পুজো করা হয় ‌।

তা বাড়ির মা দুর্গার সন্তান সংখ্যা মোট পাঁচ। কারণ এখানে জোড়া কার্তিকের দেবীর পোশাকে থাকে সাবেকিয়ানার ছাপ। লুচি নানান রকমের মিষ্টি ভোগ দেওয়া হয় মা দুর্গাকে।এই বাড়ির পুজোয় আর একটি বিশেষত্ব হলো এই পুজোয় বাড়ির পুরুষেরা বেশিরভাগ কাজ করে থাকেন।

বাড়ির মহিলারা পুরুষদের পুজোর কাজে সাহায্য করেন। এই বাড়ির দুর্গাপুজো অন্নভোগ হয় না। দাঁ বাড়ির সন্ধিপুজোয় রয়েছে বিশেষ আকর্ষণ। এই বাড়িতে বলিদান এর নিয়ম নেই। বৈষ্ণব মতে এখানে দুর্গাপূজো হয়। বিসর্জনের সময় মাকে সাতপাক ঘোরানো হয়। এবং নিরঞ্জনের আগে দেওয়া হয় গান স্যালুট।