Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

স্মৃতিশক্তি থাকবে হাতের মুঠোয়, কীভাবে?

1 min read

||শুভ্রদীপ চক্রবর্তী||

শরীরের এক অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ আমাদের মস্তিষ্ক। আর এই মস্তিষ্কই স্মৃতিশক্তি ধরে রাখার অধিকারী। প্রখর স্মৃতি শক্তির অধিকারী সকলেই হতে চান। তবে সবার যেমন সব গুণ থাকে না তেমনি সবার স্মৃতিশক্তি ধরে রাখার ক্ষমতা এক নয়। প্রখর স্মৃতিশক্তি জীবনের মূল্যবান সম্পদ। তবে মানুষের জীবনে নানা কারণে স্মৃতিশক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় যাকে স্মৃতিভ্রম বলে। অনেক মায়েরাই চিন্তিত থাকে তাদের বাচ্চার স্মৃতিশক্তি দুর্বল হওয়ার কারণে। পড়াশোনা মনে রাখতে পারে না জীবনে সফলতা পাওয়া থেকে পিছিয়ে পরে। তাই এখন বাজার চলতি অনেক রকম ওষুধের ওপর ভরসা করে অনেকে যা খেলে স্মৃতিশক্তি বাড়ে তবে এসব ওষুধ পত্রে পয়সা খরচ না করে আজ থেকেই নিজের দৈনন্দিন জীবনে কয়েকটি টিপস ও কৌশল অবলম্বন করুন যা সহজেই আপনার স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করবে।

খাদ্য-

স্মৃতিশক্তি তীক্ষ্ণ রাখার জন্য সবার প্রথমে খাদ্য তালিকায় রাখতে হবে পুষ্টিকর খাদ্য। খাদ্যতালিকায় রাখুন প্রচুর পরিমাণে ফল, শাকসবজি, চর্বিযুক্ত খাবার যেমন- তেলাক্ত মাছ, বাদাম, অলিভ অয়েল ইত্যাদি।

মধু ও দারুচিনি গুঁড়ো-

মধু ও দারচিনি স্নায়ুকে শিথিল রাখে। যা স্মৃতিশক্তি বাড়ায়। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ায়। তাই প্রতিদিন শোয়ার আগে ১চা চামচ মধুর মধ্যে এক চিমটি দারচিনি গুরো মিশিয়ে খান। প্রতিদিন এটা করলে বাড়বে আপনার স্মৃতিশক্তি ক্ষমতা।

রাতের ঘুম-

সারাদিনের খাটাখাটনির পর পর্যপ্ত ঘুম শরীরের জন্য খুবই দরকার। ঘুমালে শরীরের সাথে মন ভাল থাকে। গবেষণায় দেখা যাচ্ছে ভালঘুম স্মরণশক্তি বাড়াতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তাই বাড়ির বাচ্চাদের সকালে ঘুম থেকে উঠে পড়তে বসার অভ্যাস করা উচিত। যা তাদের পড়াশোনা মনে রাখতে সাহায্য করে।

ভাতঘুম-

বাঙালির জীবনে ভাতঘুম মাস্ট। দুপুরে পেটে ভাত পড়তে না পারতেই চোখ ঢুলুঢুলু শুরু করে। তবে কাজের চাপে সেই ঘুম আর হয়ে ওঠে না অনেকেরই। গবেষণা বলছে দিনের বেলায় ঘুম স্মৃতিশক্তি বাড়াতে অসাধারণ ভূমিকা পালন করে। তাই কাজের মাঝে সময় পেলে এক চক্কর ভাতঘুমে দিয়ে নিন যা স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করবে।

ব্যায়াম-

শরীরকে সুস্থ রাখতে ও যে কোনো ধরনের রোগ প্রতিরোধ করতে ব্যায়াম বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তবে গবেষণা বলছে স্মৃতিশক্তি প্রখর করতেও ব্যায়ামের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। যেকোনো ধরনের ব্যায়াম যেমন- দৌড়, সাঁতার, সাইকেল চালানো, জগিং এ সব স্মৃতি শক্তির জন্য খুবই ভালো। তাই স্মৃতিশক্তি প্রখর করার জন্য প্রতিদিন এই ধরনের কিছু ব্যায়াম রাখুন নিজেদের জীবন ধারায়।