সাংবাদিক নেতাদের সাথে বৈঠক, প্রকাশিত হবে চট্টগ্রামের পাঁচ পত্রিকা

1 min read

।। চট্টগ্রাম ব্যুরো, বাংলাদেশ ।।

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের (সিইউজে) সাথে আজাদী সম্পাদকের সাথে বিএফইউজের মধ্যস্থতায় সিইউজের ফলপ্রসু বৈঠক। জটিলতার অবসান। বিএফইউজে-বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব শাবান মাহমুদের নেতৃত্বে দৈনিক আজাদী সম্পাদক এমএ মালেকের সাথে শুক্রবার (১৪ আগস্ট) বিকেলে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

এতে আলোচনার মাধ্যমে ইতিবাচক অগ্রগতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন সাংবাদিক নেতারা। আজাদীসহ বন্ধ ৫টি পত্রিকা টেকনিক্যাল কোন সমস্যা না থাকলে কাল থেকে প্রকাশিত হবে বলেও জানানো হয়।

বৈঠকে বিএফইউজে সহ সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব মহসীন কাজী, সিইউজে সভাপতি মোহাম্মদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক ম. শামসুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

ঈদুল আজহার আগে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিইউজে) আন্দোলনের কর্মসূচির অংশ হিসাবে আজাদী সম্পাদকের বাড়ী ঘেরাওয়ের প্রেক্ষিতে চট্টগ্রামের পাঁচটি পত্রিকা মালিক সম্মিলিত সিদ্ধান্ত নিয়ে পত্রিকার প্রকাশনা বন্ধ করে দেন।

ঈদের ছুটি শুরু হওয়ার একদিন আগে পত্রিকা প্রকাশনা বন্ধ করে ঈদে বন্ধের পর প্রকাশনা শুরু হবে বলে অনেকে আশা করলেও শুক্রবার (১৪ আগস্ট) পর্যন্ত কোনো পত্রিকাই তাদের প্রকাশনা শুরু করেনি। মালিকরা সংবাদকর্মীদের বেতন বোনাস না দিতে সুকৌশলে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে সিইউজে নেতৃবৃন্দ মনে করছেন।

এর আগে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘ঈদের আগে আমরা যখন সাংবাদিকদের বেতন-বোনাস পরিশোধের জন্য কর্মসূচি ঘোষণা করি, তখন পত্রিকা মালিকরা এক জোট হয়ে পত্রিকার প্রকাশনা বন্ধ করে দেন। বেতন-বোনাস না দেওয়ার জন্য এটি একটি কৌশল। অবিলম্বে পত্রিকা চালু করে সাংবাদিকদের দাবি পূরণ করা না হলে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করবে।’

পত্রিকার প্রকাশনা বন্ধ রাখার বিষয়ে দৈনিক আজাদীর মালিক এবং সম্পাদক এম এ মালেক তখন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘এখন পত্রিকা প্রকাশের কোনো পরিবেশ নেই। আমাদের মান-সম্মান নিয়ে টানাটানি করা হচ্ছে। বাসভবন ঘেরাও করে প্রতিবাদ সমাবেশ করে পাড়া-প্রতিবেশীর সামনে বেইজ্জত করা হচ্ছে। এই অবস্থায় পত্রিকা প্রকাশের কোনো পরিবেশ নেই।’