পুরপ্রশাসকের পদত্যাগ, বিজেপিতে যোগ নিয়ে জল্পনা

।। রাজীব ঘোষ।।

উত্তর 24 পরগনার হালিশহর পৌরসভার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরে প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব নেন অংশুমান রায়। পরপর দুইবার হালিশহরের পুরপ্রধানের দায়িত্ব সামলেছেন তিনি। এদিন তিনি পদত্যাগ করেন। পুরসভার প্রশাসক থেকে পদত্যাগ করায় দলের ভিতরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের বিষয়টি সামনে আসছে। লোকসভা নির্বাচনে ব্যারাকপুর কেন্দ্রে বিজেপির অর্জুন সিং জয়ী হওয়ার পর একের পর এক পুরসভা ভাঙতে থাকে।

বেশিরভাগ পুরসভার চেয়ারম্যান সহ কাউন্সিলররা তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে যোগ দেন। সেই সময় অংশুমান রায় মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে চলে যান। তবে পরবর্তীতে তিনি আবার তৃণমূলে ফিরে আসেন। তারপর তাকেই পুরসভার চেয়ারম্যান করা হয়। এই বিষয়ে মুকুল রায়ের ছেলে এবং বিধায়ক শুভ্রাংশু রায় বলেন কেন ছেড়েছেন সে কথা বলতে পারব না। যারা রাজনীতিতে আসেন তারা পরিবারের জন্য সময় দিতে পারবেন না জেনেই আসেন।

একটা কথা বলতে পারি রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় এর মত লোক তৃণমূলে সম্মান পাচ্ছেন? যারা দুর্দিনে তৃণমূলকে দাঁড় করিয়েছিলেন তারা সম্মান পাচ্ছেন? বীজপুরের ক্ষেত্রে বলতে পারি কারা এখন তৃণমূল কংগ্রেস করছেন। যারা গঠন হওয়ার সময় তৃণমূলের পার্টি অফিস ভেঙেছিলেন কর্মীদের মেরেছিলেন তারাই এখন তৃণমূলে রয়েছেন।

পুরসভার প্রশাসক হিসেবে তাকে নিযুক্ত করার পর প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যে দিয়েই তাকে চলতে হচ্ছিল। বিরোধী দলের বিরোধিতার সঙ্গে শাসক তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব সামলাতে তিনি হিমশিম খাচ্ছিলেন। তবে কি কারণে পদত্যাগ করেছেন সেই বিষয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। যদিও এই বিষয়ে অংশুমান রায় নিজে কিছু বলেননি।

কাজের চাপে পরিবারকে সময় দিতে পারছেন না বলেই পদ ছাড়ছেন বলে জানান তিনি। কয়েকদিন আগে হালিশহরের সংলগ্ন এলাকায় সংঘর্ষ গোলাগুলি বোমাবাজি চলে। হালিশহর পৌরসভার প্রাক্তন উপ পুরপ্রধান রাজা দত্ত গ্রেপ্তার হন। তিনিও তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দেন। অংশুমান রায় তৃণমূলে ফিরলেও তিনি এখন বিজেপিতে আছেন। অংশুমান রায় ফের বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন বলে জল্পনা শুরু হয়েছে।