শহীদ দিবস আমার কাছে বিজেপি বিরোধিতা দিবস : ভারতি ঘোষ

।। প্রথম কলকাতা।।

এমন একটা সময় এই ২১ জুলাইয়ের ভার্চুয়াল সভাটা হল যখন করোনা এবং আম্ফানে বাংলার মানুষ বিপর্যস্ত , এই সময় কি করে উনি ৬৮০০০ বুথে বলেন আমার সভা দেখবেন বলেন ? এটা তো শহিদ দিবস ছিল , তাহলে শহিদের নাম কই ,উনি শহিদ বেদিতে মালা কোথায় দিলেন ? প্রথম কলকাতার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে এভাবেই তোপ দাগলেন বিজেপি নেত্রী ভারতি ঘোষ।

করোনা আবহে এবছর ভার্চুয়ালই পালন করা হয়েছে ২১ জুলাই। এবছর ২১ শে জুলাইয়ের সভা নিয়ে বিজেপি নেত্রী ভারতি ঘোষ বলেন এতই যদি শহিদ দিবসের তাৎপর্য হয় তাহলে আমি জিজ্ঞাসা করব ১৯৯৩ সালে ২১ শে জুলাই যখন পুলিশের গুলিতে ১৩ জন নিরপরাধ লোক মারা গিয়েছিল তখন তদন্ত করতে জাস্টিস সুশান্ত চ্যাটার্জি কমিশন তৈরি হয়েছিল, জাস্টিস সুশান্ত চ্যাটারজি ২৯ ডিসেম্বর ২০১৪ সালে আপনার কাছে গিয়ে যে রিপোর্টটা দিয়েছিলেন তদন্ত শেষ হওয়ার পরে সেটা আজও অন্ধকারে রেখে দিয়েছেন কেন?

যদি মনে করেন শহিদদের প্রতি সুবিচার করা উচিত তাহলে জাস্টিস সুশান্ত চ্যাটার্জি সেই কমিশনের রিপোর্টটা আপনি বাইরে আনলেন না কেন ?আপনি তো সেই আন্দোলনে কেন্দ্র ফিগার ছিলেন যদি তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য জাস্টিস সুশান্ত চ্যাটার্জি কমিশনের সামনে গিয়ে তার স্টেস্টমেন্ট দিতে পারেন তাহলে আপনি কেন যাননি , আপনার স্টেস্টমেন্ট কেন রেকর্ড করা হয়নি ?

এবং ততকালিন স্বরাষ্ট্র সচিব মনিশ গুপ্ত যার নির্দেশে এই লোকগুলকে গুলি করে মারা হয়েছিল সেই মনিশ গুপ্ত আপনার ক্যাবিনেটর কি করে মন্ত্রী হয় বলে এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আঙ্গুল তোলেন তিনি । এই শহিদ দিবস আমার কাছে বিজেপি বিরোধিতা দিবস বা শহিদ সম্মান প্রহসন দিবস বলে এদিন উল্লেখ করেন ভারতি ঘোষ।