বর্ণবৈষম্যের শিকার হওয়ার কথা জানালেন মাখায়া এনতিনি

1 min read

।। শুভব্রত মুখার্জি ।।

বর্ণবৈষম্যে একটা রোগের মতন। ঠিক যেন কর্কট রোগের মতন। উপর থেকে বোঝা যায়না, কিন্তু যখন বোঝা যায় তখন বাড়াবাড়ি হয়ে গেছে। জিম্বাবোয়ে, দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটে বর্ণবৈষম্যের উপস্থিতি বহুদিন ধরে রয়েছে। শ্বেতাঙ্গ ও কৃষ্ণাঙ্গ বিবাদ অনেকদিন ধরেই চলছে।

দক্ষিণ আফ্রিকার উদীয়মান পেসার লুঙ্গি এনগিডি বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ এনেছিলেন ক্রিকেট কর্তাদের বিরুদ্ধে। এখন আবার খোদ দলের মধ্যে সাদা-কালোর বিভেদ নিয়ে সরব হলেন প্রাক্তন দক্ষিন আফ্রিকান ফাস্ট বোলার মাখায়া এনতিনি । তিনি সতীর্থদের বিরুদ্ধে বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ আনলেন।

তিনি জানিয়েছেন, ‘জাতীয় দলে দীর্ঘসময় কাটালেও সবসময় আমাকে একাকীত্বে ভুগতে হয়েছে। কেউ কখনও ডিনারে যাওয়ার জন্য আমার ঘরে নক করেনি। সতীর্থরা আমার সামনেই প্ল্যান করত, অথচ আমাকে বাদ দিয়ে। ব্রেকফাস্ট টেবিলের দিকে যখন এগিয়ে যেতাম, কেউই আমার পাশে এসে বসত না।’
আমি একাকীত্ব লুকোতেই টিম বাস এড়িয়ে চলতাম। স্টেডিয়ামে যেতাম একা।

কারণ, কখনও আমি টিম বাসের পিছনে গিয়ে বসলে, বাকিরা সামনের সিটে এগিয়ে যেত। আমরা একই জার্সি পরে মাঠে নামতাম। একসঙ্গেই জাতীয় সংগীত গাইতাম। তা সত্ত্বেও দলের মধ্যে আমি ছিলাম একা। দল হারলে সবার আগে দোষ পড়ত আমার ঘাড়ে। আমি কেন টিম বাস এড়িয়ে চলতাম, কেউ কখনও জানতে চায়নি। “

এম/বি