বিকাশ দুবের এনকাউন্টার নিয়ে প্রশ্ন মহুয়ার

1 min read

।। রাজীব ঘোষ ।।

কুখ্যাত গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের এনকাউন্টার নিয়ে বিরোধী রাজনৈতিক শিবির থেকে প্রশ্ন উঠতে শুরু করল। উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী এবং সমাজবাদী পার্টির নেতা আখিলেশ যাদব টুইটারে যোগী সরকারের উদ্দেশ্যে লেখেন আসলে গাড়ি উল্টায়নি। রহস্য ফাঁস হলে সরকার উল্টে যেত। সেটাই ঠেকানো গিয়েছে। রাজ্যের আরও এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মায়াবতী বলেন কানপুর পুলিশের হত্যাকাণ্ডের পাশাপাশি বিকাশের গাড়ি উল্টে যাওয়া এবং পুলিশের হাতে তার মৃত্যু সুপ্রিমকোর্টের নজরদারিতে সমস্ত ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তের প্রয়োজন।

কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী টুইটারে লেখেন অপরাধী না হয় শেষ হয়ে গেল। কিন্তু অপরাধীকে যারা নিরাপত্তা দিয়ে আসছিল তাদের কি হবে। কানপুর হত্যাকাণ্ড থেকে বিকাশ দুবের গ্রেপ্তারি, গোপনে কারা তাকে সহযোগিতা করেছিল সেই সব এর সিবিআই তদন্ত হওয়া প্রয়োজন বলে কয়েকদিন ধরেই দাবি জানিয়ে আসছিলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। কুখ্যাত গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের এনকাউন্টার নিয়ে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র টুইটারে প্রশ্ন তুলেছেন বিচার করা আদালতের কাজ।

পুলিশের কাজ অভিযুক্তকে আদালতে পৌঁছে দেওয়া।তাজ্জব হয়ে যাচ্ছি বিজেপি শাসিত ভারতে দুটোর ভূমিকা বদলে গিয়েছে। যোগীজির এনকাউন্টার রাজে যদি মৃত্যু হয়ে থাকে কারো সেটা ন্যায়বিচারের। প্রসঙ্গত, বেশ কয়েকদিন ধরে পালিয়ে বেড়ানোর পর পুলিশ বিকাশ দুবে কে গ্রেপ্তার করে। তবে পুলিশ গ্রেপ্তার করে নাকি সে নিজে থেকে ধরা দেয় সেটা নিয়ে বিতর্ক চলছিল। পুলিশের দাবি গাড়ি উল্টে যাওয়ার পর বিকাশ পুলিশের পিস্তল ছিনিয়ে পালানোর চেষ্টা করে।

তাকে আত্মসমর্পণ করতে বললে গুলি চালায়। পুলিশ পাল্টা গুলি চালায়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে তার মৃত্যু হয়। তবে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারা একাধিক প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন। কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং টুইটারে লিখেছেন বিকাশ দুবের সঙ্গে কোন কোন নেতার যোগসাজশ ছিল। পুলিশ এবং আমলাদের সঙ্গে কি সম্পর্ক ছিল। সেটা আর সামনে আসবে না। গত তিন-চার দিনে বিকাশ দুবের 2 সঙ্গীর এনকাউন্টার হয়েছে। কিন্তু প্রত্যেকের এনকাউন্টারের ধরন একরকমের কেন। বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতারা প্রশ্ন করছেন।