কমাবে রক্তচাপ ! ভালো রাখবে ত্বক ! নিয়মিত খান এই ম্যাজিক ফুড

1 min read

।।শুভশ্রী মুহুরী।। কলকাতা।।

আনুমানিক দশ হাজার বছর আগে মধ্য আমেরিকা এবং মেক্সিকোতে ভুট্টার চাষ শুরু হয়। ভুট্টাকে সবজি হিসেবে ধরা হলেও, এটি আসলে শস্য। ভুট্টায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, ভিটামিন, খনিজ এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। ভারতে সাধারণত হলুদ রঙের ভুট্টা দেখা গেলেও দক্ষিন মেক্সিকোতে লাল, কমলা, গোলাপি, নীল, সাদা এমনকি কালো রঙের ভুট্টাও দেখা যায়। পুষ্টি সমৃদ্ধ ভুট্টার দানা বেশি খাওয়া হয়। আপনারও যদি ভুট্টা খেতে ভালো লাগে তাহলে আজ থেকে ডায়েটে ভুট্টা যোগ করুন। ভুট্টায় প্রচুর পরিমাণে সুক্রোজ রয়েছে ঠিকই, কিন্তু এর মধ্যে আরও অনেক উপাদান রয়েছে যা শরীরের জন্য খুবই ভালো।

ভুট্টার উপকারিতা জেনে নিন

১) রক্তাল্পতার সম্ভাবনা কমায়ঃ ভুট্টায় রয়েছে ভিটামিন বি-১২, ফলিক অ্যাসিড, এবং আয়রন। যা শরীরে লাল রক্ত কণিকার উৎপাদনে সাহায্য করে এবং শরীরে সবরকম পুষ্টির যোগান দিয়ে রক্তাল্পতার সম্ভাবনা কমায়। পুষ্টিবিদেরা বলছেন, এক কাপ ভুট্টায় রয়েছে ১২৫ ক্যালোরি, ২৭ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ৪ গ্রাম প্রোটিন, ৯ গ্রাম চিনি, ২ গ্রাম ফ্যাট এবং ৭৫ মিলিগ্রাম আয়রন।

২) শক্তি বাড়াতেঃ আপনি যদি প্রতিদিন জিমে যান তাহলে মাঝেমধ্যে ডায়েটে ভুট্টা রাখুন। এতে রয়েছে কমপ্লেক্স কার্বোহাইড্রেট, যা হজম হতে সময় নেয় এবং দীর্ঘ সময়ের জন্য শরীরে শক্তি বজায় রাখে। এক কাপ ভুট্টা অর্থাৎ ২৯ গ্রাম কার্ব। যা শুধু শরীরে শক্তি যোগায় না বরং মস্তিস্ক এবং পেশির কার্য সচল রাখে।

৩) ওজন বাড়ানোর ম্যাজিকঃ অনেকেই কম ওজনের সমস্যায় ভোগেন। কিন্তু কীভাবে ওজন বাড়াবেন বুঝতে পারেন না। তাঁদের জন্য ভুট্টা ম্যাজিকের কাজ করতে পারে। ভুট্টায় রয়েছে ক্যালোরি যা শরীরের ওজন বাড়াতে সহায়তা করবে এবং কার্ব শরীরে শক্তি যোগাবে।

আরো পড়ুন : গোলমরিচ লবঙ্গর জলে কমান ওজন

৪) রক্তচাপ এবং কোলেস্টেরল কমাতেঃ ভুট্টা শরীরে রক্তের সঞ্চালনা বাড়ায় এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে এবং ইনসুলিন উৎপাদন করে। ডায়েটিশিয়ান শিলা কৃষ্ণস্বামী বলছেন, ‘ভুট্টায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে কার্ব, যা শক্তি যোগান দেয়। এছাড়াও ভুট্টায় রয়েছে ভিটামিন বি-১, ভিটামিন বি-৫ এবং ভিটামিন বি-সি যা রোগের সাথে লড়ে শরীরে নতুন কোষ তৈরী করতে সহায়তা করে। ভুট্টা রক্তচাপ এবং ডায়াবেটিসের সমস্যা নিয়ন্ত্রণ করে কোলেস্টেরল কমাতে সহায়তা করে।

৫) গর্ভবতী অবস্থায় সহায়কঃ ভুট্টায় রয়েছে ফলিক অ্যাসিড, জেক্সান্থিন এবং পাথোজেনিক অ্যাসিড। যা বাচ্চার জন্মকালীন সমস্যা নিয়ন্ত্রণ করে। ভুট্টা বাচ্চাকে পেশিগত সমস্যা এবং শারীরিক সমস্যা থেকে রক্ষা করে। প্রচুর ফাইবার থাকায় ভুট্টা বাওয়েল মুভমেন্ট সঠিক রাখে।

৬) ত্বক ভালো রাখতেঃ ভুট্টায় রয়েছে ভিটামিন সি এবং লাইসোপেনে। এই উপাদানগুলি শরীরের কোলেজেনের উৎপাদন বাড়ায় এবং ত্বককে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচায়। ভুট্টা সরাসরি খাওয়া ছাড়াও ভুট্টার তেল, ভুট্টার আটা, তৈরী হয়। যা ত্বকের বিভিন্ন প্রোডাক্টে ব্যবহার করা হয়।