হাতে গোনা বায়না নিয়েই , সেজে উঠছে কুমোরটুলি

1 min read

।। সায়ন সেনগুপ্ত ।। কলকাতা ।।

মহালয়ার পর হাতে বাকি আর ৩০ দিন, এর ই মধ্যে ই কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ার চেষ্টা করছে কুমোরটুলি। করোনা ভাইরাসের দাপটে কার্যত বহুদিন বন্ধ ছিল সমস্ত কাজ কর্ম। এরপর ধীরে ধীরে বদলাতে শুরু করেছে পরিস্থিতি , জুন থেকে জুলাইয়ের মধ্যে যেখানে চলে আসতো টুলির অধিকাংশ বায়না, সেই যায়গায় শুধুই শূন্যতা।

এরমধ্যেই পূজোর বাজেট কমাতে শুরু করে কলকাতার একাধিক নামি দামি ক্লাব ও পূজো কমিটি। যার প্রভাব এসে পড়েছে কুমোরটুলির শিল্পীদের উপরেও। এমনকি বেশকিছু কমিটি বাজেট কমানোর পাশাপাশি বদলে ফেলে মূর্তির আকৃতি।

এছাড়াও শোনা যাচ্ছিল বেশ কিছু ক্লাবে এইবার হতে পারে ঘট পূজো, যাতে বড়ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন মৃৎ শিল্পীদের। একই সঙ্গে মন্ডপ সজ্জায় নিযুক্ত কর্মীদের অবস্থা ও প্রায় একই রকম। মূর্তির পাশাপাশি মন্ডপ সজ্জার ক্ষেত্রে যে সমস্ত সামগ্রী ব্যবহৃত হয় তাতে ও এবারে ভাটার টান।

বাজেট কমিয়ে আনায়, এবারে সেই সমস্ত সরঞ্জামেরও চাহিদা কমে গেছে। এছাড়াও শিল্পী রা বলছেন, সোলা সহ আরো যে সমস্ত জিনিসপত্র দিয়ে মন্ডপ সজ্জার কাজ করা হয়ে থাকে তার বেশির ভাগ ই আসে, ট্রেনে করে।

কিন্তু করোনা পরিস্থিতি তে লকডাউন করে দেওয়ার জন্য বন্ধ হয়েছে সেই সুযোগ । সড়ক পথে যে পরিমানে জিনিস আমদানী-রপ্তানি চালু রয়েছে, তার খরচ মিটিয়ে কারুকার্য করা যথেষ্ট কষ্টসাধ্য, এবং তা দিয়ে লাভ করা দুঃসাধ্য তাদের কাছে। কাজেই ভাঁটার টান পড়েছে তাদের রোজগারেও।

এসব এর মাঝেও হাতে গোনা কিছু বায়না নিয়ে পূজোর সাজে সাজতে চলেছে কুমোরটুলি, বিগত বছরের মত জাঁকজমক না থাকলেও দায়বদ্ধতার মধ্যে দিয়ে ই কুমোরটুলি তে সেজে উঠছেন মা দুর্গা।