Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দুবছরেরও কম সময়ে লালার রোজকার ১৩৫২ কোটি টাকা

।। শর্মিলা মিত্র ।।

দুবছরেরও কম সময়ে তার রোজকার ১৩৫২ কোটি টাকা। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট সূত্রে খবর, অভিযুক্ত ব্যবসায়ী অনুপ মাঝি ওরফে লালা কয়লা পাচারের মাধ্যমে দু বছরের কম সময় এই বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি করেছেন।

জানা গিয়েছে, দিল্লির বিশেষ আদালতে ইডির তরফে যে তথ্য জমা দেওয়া হয়েছে তাতে এমন তথ্যের উল্লেখ করেছেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। এছাড়াও ব্রিটেন ও থাইল্যান্ডের দুটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টেও বিপুল পরিমাণ টাকা পাঠানো হয়েছে বলে আদালতে দাবি করা হয় ইডির তরফে বলে জানা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, কয়লা পাচার মামলায় বাঁকুড়ার আইসি অশোক মিশ্র কে গত সপ্তাহে গ্রেফতার করে ইডি। তদন্তকারীদের দাবি, তাদের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে অশোক মিশ্র জানান ব্যবসায় বিনয় মিশ্রর সঙ্গে তাঁর ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। এবং লালা ওরফে অনুপ মাঝির কাছ থেকে পাওয়া টাকা বিনয় মিশ্রের নির্দেশে নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্টে পাঠানো হয়েছিল।

কয়লা পাচার কাণ্ডে ইডির পাশাপাশি সিবিআইও তদন্ত করছে। ইতিমধ্যেই জানা গিয়েছে তারা বেশ কয়েকজন লালার ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ীকে জিজ্ঞাসাবাদও করেছে। এর পাশাপাশি জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় স্ত্রী শ্যালিকা এবং তার স্বামী ও শ্বশুরকেও। এরই মধ্যে এই মামলায় ইডির তরফে গ্রেফতার করা হয় বিনয় মিশ্রর ভাই বিকাশ মিশ্র এবং বাঁকুড়ার আইসি অশোক মিশ্রকেও।

ইডির দাবি, এখনো পর্যন্ত যে যে জায়গায় তল্লাশি চালানো হয়েছে বা যা ডিজিটাল ডিভাইস বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, এবং লালার যে বেশ কয়েকজন সঙ্গীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে সবকিছুর ভিত্তিতেই ইডির তদন্তকারীদের দাবি অশোক মিশ্রর মাধ্যমে কয়লা পাচারের টাকা বাইরে পাঠানো হয়েছে এখন তদন্তকারীরা জানার চেষ্টা করছেন কয়লা পাচারের বিপুল পরিমাণ টাকা ঠিক কোন কোন জায়গায় পাচার করা হয়েছে বিদেশেও কোথায় কোথায় টাকা পাঠানো হয়েছে।

পাশাপাশি আরও জানা গিয়েছে যে, কয়লা কাণ্ডের মূল অভিযুক্ত অনুপ মাঝি ওরফে লালার সম্পত্তি ইতিমধ্যেই বাজেয়াপ্ত করেছে ইডি। অন্যদিকে সিবিআই সূত্রে খবর, বারবার হাজিরা দিলেও তদন্তে অসহযোগিতা করছে অনুপ মাঝি ওরফে লালা। এছাড়াও ইডি সূত্রে আরও জানা গিয়েছে যে, আসানসোল এবং পশ্চিম বর্ধমানের বিস্তীর্ণ এলাকায় একাধিক স্পঞ্জ আয়রন কারখানা ছিল লালার। ইসিএল থেকে যে কয়লা লালা তুলে আনত, তার একটা অংশ সেই স্পঞ্জ আয়রন কারখানাতেও ব্যবহার করা হত।