Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আমি ভদ্র ছিলাম, এবার বলছি মারলে পাল্টা মার খেতে হবে :জ্যোতিপ্রিয়

1 min read
Jyotipriya-21122020

।। শর্মিলা মিত্র ।।

‘রাজনৈতিক combat করতে চাই’, ‘রাজনৈতিক মতবাদ প্রতিষ্ঠা করার লড়াই’। ‘কিছু অশিক্ষিত মানুষ নিয়ে ভারতীয় জনতা পার্টি চলে’। এইভাবেই রবিবার বনগাঁয় পশ্চিমবঙ্গ সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পের কার্নিভালে মোটর বাইক মিছিলের উদ্বোধন করতে এসে বিজেপিকে এইভাবে কটাক্ষ করলেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (Jyotipriya Mallick)। পাশাপাশি তার হুঙ্কার, ‘মারলে পাল্টা মার হবে এবার জেনে রেখে দিন এমন মার দেব, এমন শিক্ষা দেব বিজেপির লোকেরা বুঝতে পারবেন’। বনগাঁয় বললেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (Jyotipriya Mallick)। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিজেপির উদ্দ্যেশে হুঙ্কার ছেড়ে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক আরও বলেন, ‘এবার শুনুন আমি অনেকদিন ভদ্র ছিলাম বিজেপি যদি একতরফা মনে করে থাকে বিজেপি রাজ্য সভাপতি তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীকে মারব মেরে দেবো গুলি করে দেবো আমি গুলি করার কথা বলবোনা রক্তের কথা বলব না মারলে পাল্টা মার হবে এবার জেনে রেখে দিন ‘ তিনি বলেন, ‘এমন মার দেব, এমন শিক্ষা দেব বিজেপির লোকেরা বুঝতে পারবেন পাড়ায় পাড়ায় হবে ।

মুখের বাকসংযম করুন, লোককে গুলি করে দেবো মেরে দেব,শ্মশানে পাঠিয়ে দেব, এসব করলে পাল্টা হবে পাল্টা লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিন লড়াই হবে’ পাশাপাশি তার মন্তব্য, ‘বাংলার মানুষ আমাদের সঙ্গে আছে ।’ অন্যদিকে, এদিন সকালে বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং-এর (Arjun Singh) দাবি মত ২৬ জন বিধায়ক তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া প্রসঙ্গে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (Jyotipriya Mallick)বলেন, ‘ওরা ২৯৪ নিয়ে নেবে না তো! আমি দ্বিধাহীন কন্ঠে বলছি অর্জুন শিক্ষাগত যোগ্যতা কমতো সংখ্যাটাও গুনতে পারে না l ১,২, ৩, ৪, ৫, ৬, ৭- গুনতে পারে না চটকদারি কথা বলে মিডিয়ায় থাকতে চায়’ বলে কটাক্ষ জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের (Jyotipriya Mallick)।

আরো পড়ুন : বালি পাচার হচ্ছে পাথর পাচার হচ্ছে, জঙ্গলমহলের মানুষ না খেয়ে মরছে? আক্রমণাত্মক দিলীপ

পাশাপাশি ‘জানুয়ারি মাসে অমিত শাহ-র সভার ৭ দিনের মধ্যে পাল্টা ঠাকুরনগরে সভা করবেন’ বলেও জানান জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (Jyotipriya Mallick)।অন্যদিকে, মিম প্রধান ওয়াইসি ও আব্বাস সিদ্দিকীর সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি বলেন ‘১৩ ই মে যদি কাউন্টিং হয় তাহলে ১৪ ই মে এরা সবাই পাততাড়ি গুটিয়ে দিল্লি চলে যাবে’ পাশাপাশি, তার কটাক্ষ ‘বিজেপির কোন মুখ নেই। তৃণমূলের কংগ্রেসের মুখ নিয়ে বিজেপির মুখ। তৃণমূল কংগ্রেসের যারা খেয়েছে যারা পড়েছে যারা নামডাক করেছে তারাই বিজেপিতে গিয়ে লিডার হয়েছে’। পাশাপাশি তার কটাক্ষ ‘তাদের মীরজাফরের তকমা নিয়ে চলতে হচ্ছে’। সিএএ নিয়ে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক (Jyotipriya Mallick) বলেন, ‘দ্বিধাহীন কণ্ঠে বলছি কারওর প্রয়োজন নেই নাগরিকত্বর। আমাদের ভোটার কার্ডই আমাদের নাগরিকত্বর পরিচয়।’