Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

৬৮ আসনে জিতে গিয়েছি, দাবি অমিতের, পাল্টা মমতা কটি আসন ‘দিলেন’ বিজেপিকে?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

৯১টি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হয়ে গিয়েছে। সেখানে ৬৩-৬৮ আসনে বিজেপি জিতে গিয়েছে বলে দাবি করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বুধবার রাজ্যে এসে বেশ কয়েকটি রোড শো করেছেন তিনি। সেখানে তিনি বলেন, প্রথম তিনটি পর্যায়ে নির্বাচনের পর বিজেপি ৬৩-৬৮ আসনে জিতছে। বিষয়টি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন।

তিনি মনে করেন, ২৫-৩০টির বেশি আসনে বিজেপি জিততে পারবে না প্রথম তিনটি দফা মিলিয়ে। এদিন মমতা বলেন, ” বিজেপির কথা বিশ্বাস করবেন না। ছত্তিশগড়ে নির্বাচনের পর অমিত শাহ বলেছিলেন ৬৫টিতে জিতবেন। কিন্তু জিতেছিলেন মাত্র ১৫টি আসনে। ঝাড়খন্ড বিধানসভা নির্বাচনের পর বলেছিলেন তাঁরা একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবেন। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে ৮১টির মধ্যে বিজেপি পেয়েছিল ২৫ আসন। তাই বলছি তিনটি দফায় যে নির্বাচন হয়েছে সেটা ওদের জায়গা ছিল।

তা সত্ত্বেও ওরা বড় পার্টি বলে একটু বাড়িয়ে বলছি, ২৫-৩০টির বেশি আসন পাবে না। ” এভাবেই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দাবি পুরোপুরি নস্যাৎ করে দিয়েছেন মমতা। কিন্তু বাংলার নির্বাচনের সঙ্গে ছত্তিশগড় এবং ঝাড়খণ্ডের যে কোনও তুলনা চলে না, সেটা সকলেই জানেন। ঝাড়খন্ডে দীর্ঘদিন ক্ষমতায় ছিল বিজেপি। সেখানে দলের মধ্যে ছিল তীব্র গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ব্যাপক ক্ষোভ ছিল রাজ্যবাসীর। এর পাশাপাশি কংগ্রেস, ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চা, আরজেডি প্রভৃতি দলগুলি মহাজোট তৈরি করেছিল।

আরো পড়ুন : হাজার টাকার কুপন নিয়ে তৃণমূলের অভিযোগ, কিন্তু উঠছে অনেক প্রশ্ন

বিজেপির বিরুদ্ধে জোট শরিক বহু আসনে প্রার্থী দিয়েছিল। সবমিলিয়ে নির্বাচনের আগেই প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যে ছিল গেরুয়া শিবির। ছত্তিশগড়েও বিজেপিকে প্রাতিষ্ঠানিক বিরোধিতার মুখে পড়তে হয়েছিল। মূলত এই কারণেই তাদের পরাজয় হয়েছিল ওই দুটি রাজ্যে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে ছবিটা পুরো অন্য। এখানে বিজেপির পক্ষে প্রবল জনসমর্থন দেখা যাচ্ছে গত লোকসভা নির্বাচনের সময় থেকেই। বাংলায় বিজেপি এখনও পরীক্ষিত নয়। তাই তাদের ঘিরে সাধারণ মানুষের একটা আশা-আকাঙ্ক্ষা থাকবে, এটাই স্বাভাবিক। সবচেয়ে বড় কথা তৃণমূলকে লড়তে হচ্ছে দশ বছরের প্রাতিষ্ঠানিক বিরোধিতার সঙ্গে।

সেই কারণেই সুবিধাজনক জায়গায় রয়েছে বিজেপি। উল্লেখ্য গত লোকসভা নির্বাচনের সময় পশ্চিমবঙ্গে ২২টি আসনে জেতার কথা বলেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। শেষপর্যন্ত বিজেপি জয় পেয়েছিল ১৮ টিতে। আরামবাগ লোকসভা কেন্দ্রে মাত্র এক হাজার ভোটে তারা পরাজিত হয়। অর্থাৎ অমিত যে দাবি তখন করেছিলেন নির্বাচনের আগে, সেটি কার্যত মিলে গিয়েছিল। তাই বর্তমানে তিনটি পর্যায়ের নির্বাচনের পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ যে দাবি করেছেন এতগুলি আসন জেতার ব্যাপারে, তাতে ভাল কিছুর আশা করতেই পারে বঙ্গ বিজেপি।