Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করলাম, কী বলতে চাইলেন নাড্ডা?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

একদিনের ঝটিকা সফরে রাজ্যে এসেছেন বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা। কাটোয়ায় দলীয় কর্মসূচির পর বর্ধমানে রোড শো করেন তিনি। এরপর রাতের দিকে সাংবাদিক সম্মেলনে তৃণমূল সরকারকে তীব্র আক্রমণ করেন। সাফ জানিয়ে দিলেন, তিনি তৃণমূলের সমস্ত চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করছেন। উল্লেখ্য কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজ্যে প্রথম বলেছিলেন বিজেপি বিধানসভা নির্বাচনে ২০০ আসনে জিতে ক্ষমতায় আসবে। সেই একই দাবি করলেন নাড্ডা। তিনি বলেন,” বিজেপির ৩০০ কর্মীকে খুন করা হয়েছে বাংলায়। গত এক মাসে আমাদের ৫ জন কর্মী খুন হয়েছেন। রাজ্য আইন-শৃঙ্খলা বলতে কিছু নেই। চারদিকে শুধু দুর্নীতি। আমপান ঝড়ের পর তার ক্ষতিপূরণ নিয়ে দুর্নীতি হয়েছে।

হাইকোর্টের নির্দেশে ক্যাগ তদন্ত করছে। অথচ তৃণমূল সরকার সুপ্রিম কোর্টে গিয়ে সেই তদন্ত বন্ধ করতে চাইছে। মমতাজি আপনি এত ভয় পাচ্ছেন কেন? ভয় পাচ্ছেন বলেই বাধা দিচ্ছেন তদন্তে। আপনার সরকার সবার বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে। কথা দিচ্ছি গণতান্ত্রিকভাবে বিজেপি লড়বে। সমস্ত চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করছি। ২০০ আসনে জিতে বিজেপি ক্ষমতায় আসবে বাংলায়। জিত আমাদের হবেই”। বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে উন্নয়ন নিয়ে তাদের ভাবনা কি? এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন,” আমাদের রোডম্যাপ তৈরি। তবে একটা রাজ্যে শিল্প উন্নয়নের জন্য সবার আগে প্রয়োজন আইন-শৃংখলার উন্নতি। দুঃখের কথা রাজ্যে সেটা নেই। বিজেপি শাসিত রাজ্যে গিয়ে দেখুন, কিভাবে উন্নয়ন হচ্ছে। বিহারে বিরোধীরা দাবি করেছিল ১০ লক্ষ লোকের চাকরি দেবে। ওদের কথা মানুষ বিশ্বাস করেনি। তৃণমূলের অবস্থাও তাই। এরা কেউ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের ‘এ’ শব্দটা পর্যন্ত জানে না। আইন-শৃঙ্খলার উন্নতির বিষয়টি পশ্চিমবঙ্গে মিসিং”।

শনিবার বর্ধমানে যে মিছিল হয়েছে তাতে বিজেপি কর্মীরা নন, সাধারণ মানুষ স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি। বিজেপি সভাপতি বলেন,” হাজার হাজার মানুষ স্বেচ্ছায় যোগ দিয়েছেন মিছিলে। মানুষ বুঝিয়ে দিচ্ছে পরিবর্তনের পরিবর্তন হবে। কৃষিতে রাজ্যের স্থান দেশের মধ্যে ২৪ নম্বরে নেমে গিয়েছে। বাংলা শস্যগোলা বর্ধমানের কি করুণ হাল দেখলাম। বিজেপি ক্ষমতায় এসে অবশ্যই আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প চালু করবে। বাংলার ৪ কোটি ৬৭ লক্ষ মানুষ এর আওতায় আসবে। কৃষকদের উন্নতি হবে। বন্ধ হবে কাটমানি, তোলাবাজি।”

এদিন তৃণমূলের এক শীর্ষ যুবনেতাকে রাজকুমার বলে সম্বোধন করেছেন বিজেপি সভাপতি। কাকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন আপনি? এ প্রশ্নের উত্তরে নাড্ডা বলেন, তার উত্তর সেখানকার মানুষই দিয়ে দিয়েছে। তাঁরাই চিৎকার করে নামটা বলে দিয়েছে। অন্যান্য রাজ্যের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গেও চালু হচ্ছে করোনার টিকা প্রদান। সে বিষয়ে তিনি বলেন, আশা করছি মুখ্যমন্ত্রীর শুভবুদ্ধির উদয় হবে। তিনি বিরোধিতা করবেন না। ১১ তারিখ প্রধানমন্ত্রী যে ভার্চুয়াল মাধ্যমে বৈঠক করবেন সমস্ত মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে, তিনি থাকবেন আশা করি। এর পাশাপাশি বিজেপি সভাপতি বলেছেন সিএএ আইন অবশ্যই লাগু হবে রাজ্যে। তিনি বলেন, আইন যখন হয়েছে তখন সেটা চালু হবে। আমরা এটা করতে কমিটেড। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ব্যাপক সরব হয়েছেন তিনি।